Page Nav

HIDE

Grid Style

GRID_STYLE

Post/Page

Weather Location

Breaking News:

latest

*বাস্তু অনুযায়ী, বাড়ির নেতিবাচক শক্তি দূর করতে, এই পদক্ষেপ অনুসরণ করুন:*

বাস্তুশাস্ত্র ঘরের নেতিবাচক শক্তি অপসারণের জন্য বাস্তু সম্পর্কিত নিয়ম গ্রহণের উপর জোর দিয়েছেন। অনেক সময় বাড়ির জিনিসগুলি রক্ষণাবেক্ষণ করা বাস্তু নিয়মের পরিপন্থী, যা আপনি জানেন না যে ঘরের মধ্যে নেতিবাচক শক্তি বৃদ্ধি পায়। যদি …




বাস্তুশাস্ত্র ঘরের নেতিবাচক শক্তি অপসারণের জন্য বাস্তু সম্পর্কিত নিয়ম গ্রহণের উপর জোর দিয়েছেন। অনেক সময় বাড়ির জিনিসগুলি রক্ষণাবেক্ষণ করা বাস্তু নিয়মের পরিপন্থী, যা আপনি জানেন না যে ঘরের মধ্যে নেতিবাচক শক্তি বৃদ্ধি পায়। যদি এই বিষয়গুলি উপেক্ষা করা হয়, তবে ঘৃণিত শক্তি ঘরে প্রবেশ শুরু করে। এই নেতিবাচক শক্তিগুলি আপনার বাড়ির অশান্তি, আর্থিক সমস্যা, অসুস্থতা, পারিবারিক কলহ এবং দুর্দশাকে বাড়িয়ে তোলে। আপনি এই নেতিবাচক শক্তি দেখতে পারেন না তবে ভাল অনুভব করতে পারেন। আপনি যদি মনে করেন যে আপনার বাড়িতে নেতিবাচক শক্তি রয়েছে যা আপনাকে বিরক্ত করছে, তবে আপনি কয়েকটি সহজ বাস্তু প্রতিকার গ্রহণ করে এগুলি আপনার বাড়ি থেকে দূরে সরিয়ে নিতে পারেন।


:- বাড়িতে জলের সঠিক ব্যবহার - বাড়িতে ছড়িয়ে থাকা নেতিবাচক শক্তি দূর করতে পারে। দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব দিকে জল কখনই রাখবেন না কারণ আগুন সম্পর্কিত কাজের জন্য এই দিকটি শুভ বলে বিবেচিত হয়। উত্তর, উত্তর-পূর্ব এবং পূর্ব দিকগুলি জলের জন্য শুভ বলে বিবেচিত হয়। একটি বাটিতে বিশুদ্ধ জল বা গঙ্গাজল ভর্তি করুন এবং এটি ৪ থেকে ৫ ঘন্টা সূর্যের আলোয় রাখুন। তারপর আম বা অশোক পাতার সাহায্যে বাড়ির সর্বত্র জল ছিটিয়ে ঘরে শান্তি ও সুখ থাকবে।


:- কর্পূরের উপকারী - কর্পূরের নিয়মিত ব্যবহার কেবল বাড়ির নেতিবাচক শক্তিই দূর করে না, বিভিন্ন স্বাস্থ্য সমস্যা দূর করতেও সহায়তা করে। বাস্তুমতে, আপনার কঠোর পরিশ্রমের পরেও কাজ হয় না, যদি কাজ বন্ধ হয়ে যায়, একটি রুপোর বাটিতে নিয়মিত লবঙ্গ এবং কর্পূর পুড়িয়ে বাড়ির চারপাশে ঘোরান। এটি জীবনের বাধাগুলি দূর করবে এবং খারাপ কাজ গুলির দিকেও পরিচালিত করবে। বাড়িতে স্থাপত্যগত ত্রুটির কারণে, বাড়ির সুখ ও শান্তি বিঘ্নিত হয়, সেখানে কলহের পরিবেশ রয়েছে। দোকান বা প্রতিষ্ঠানে স্থাপত্যগত ত্রুটির কারণে সর্বদা ক্ষতি হয়। স্থাপত্যত্রুটি এবং নেতিবাচক শক্তি অপসারণ করতে বাড়ি বা প্রতিষ্ঠানে কর্পূর রাখুন। এটি করার মাধ্যমে নেতিবাচক শক্তি অপসারণ করা হবে এবং অর্থ লাভজনক হবে।


:- লবণ ত্রাণ প্রদান করবে - লবণ স্থাপত্য ত্রুটি প্রতিরোধের জন্য একটি শক্তিশালী প্রতিকার। একটি কাচের বাটিতে সান্ধা লবণ ভর্তি করে টয়লেটে রাখলে সেখানে নেতিবাচক শক্তি দূর হয়। পনেরো দিন পরে লবণ পরিবর্তন করতে থাকুন। আসলে, লবণ এবং কাচ উভয়ই রাহু বস্তু যা রাহুর নেতিবাচক প্রভাব অপসারণ করে। রাহুকে নেতিবাচক শক্তি এবং জীবাণুর কারণ হিসাবে বিবেচনা করা হয় যা সংক্রমণ দেয়। এটি পরিবারের স্বাস্থ্য এবং সমৃদ্ধি উভয়কেই বিরূপভাবে প্রভাবিত করে। রাতে ঘুমানোর সময় জলে এক চিমটি লবণ দিয়ে হাত ও পা ধোয়া কেবল শারীরিক ক্লান্তি দূর করে না, চাপও দূর করে এবং ঘুমের উন্নতি করে। এছাড়া রাহু ও কেতুর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও দূর হয়।


:- ঘণ্টা বাজানো ভাল - সকালে প্রভুর আরতির সময় পূজা স্থানে রাখা ঘণ্টা বাজানোর সাথে সাথে নেতিবাচক শক্তি বাড়ির বাইরে চলে যায়, ঘরে ইতিবাচক শক্তি সঞ্চারিত হয়, যা আপনার শারীরিক, মানসিক এবং আর্থিক সমস্যা সরিয়ে দেবে ঘন্টার শব্দটি মনকে শান্ত করে এবং বাড়িতে সুখ শান্তি নিয়ে আসে।

No comments