Page Nav

HIDE

Grid Style

GRID_STYLE

Post/Page

Weather Location

Breaking News:

latest

*জেনে নিন, কিছু সহজ ঘরোয়া প্রতিকার, অ্যালার্জি, চুলকানি সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে :*

অ্যালার্জিতে তাঁরাই বেশি আক্রান্ত যাঁদের রক্তে ইওসিনোফিলের মাপ বেশি। বেশিরভাগ সময় অ্যালার্জির ক্ষেত্রেও চুলকানিটা একটা লক্ষণ, কারণ শরীরের অ্যালার্জেনের প্রতিক্রিয়া বা বহিঃপ্রকাশ হল ইনফ্লেমেশন অর্থাৎ জ্বালা-যেটা চুলকানির রূপে প্র…





অ্যালার্জিতে তাঁরাই বেশি আক্রান্ত যাঁদের রক্তে ইওসিনোফিলের মাপ বেশি। বেশিরভাগ সময় অ্যালার্জির ক্ষেত্রেও চুলকানিটা একটা লক্ষণ, কারণ শরীরের অ্যালার্জেনের প্রতিক্রিয়া বা বহিঃপ্রকাশ হল ইনফ্লেমেশন অর্থাৎ জ্বালা-যেটা চুলকানির রূপে প্রকাশ পায়। এই চুলকানি শরীরে যে কোনও স্থানে হতে পারে।


:- নারকেল তেল : এটি স্কিন কেয়ারের জন্য খুব ভালো, এটিতে ময়েশ্চারাইজিং রয়েছে যা অ্যালার্জির ক্ষেত্রে ত্বককে সুরক্ষা দেয়। শুধু তাই নয়, নারকেল তেল অ্যালার্জির কারণে চুলকানিও কমায়। একটি বাটিতে সামান্য নারকেল তেল নিন এবং ৫ সেকেন্ডের জন্য গরম করুন। তারপরে আপনি যেখানে অ্যালার্জির লক্ষণ দেখছেন সেই জায়গায় এই গরম তেলটি প্রয়োগ করুন। মনে রাখবেন, এ্যালার্জির জায়গায় রেখে দিন, ম্যাসাজ করবেন না। এক ঘন্টা রেখে দিন। ৩-৪ ঘন্টা পর পর নারকেল তেল ব্যবহার করতে পারেন। এটি ত্বকের অ্যালার্জি উপশম করবে।


টি-ট্রি অয়েল : এলার্জি থেকে মুক্তি পাওয়ার দুর্দান্ত উপায় হল টি-ট্রি অয়েল। টি-ট্রি অয়েলও ত্বকের অ্যালার্জিতে খুব সহায়ক। এটিতে অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল এবং অ্যান্টিআইনফ্লেমেটরি বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা অনেক ত্বকের অ্যালার্জি থেকে মুক্তি দেয়। । ত্বকের লালচেভাব এবং চুলকানি থেকে মুক্তি পেতে টি-ট্রি অয়েল একটি দুর্দান্ত বিকল্প।


আপেল সিডার ভিনেগার : এতে অ্যাসিটিক অ্যাসিড রয়েছে যা ত্বকে চুলকানি এবং অ্যালার্জির প্রভাব কমায়। তবে সংবেদনশীল ত্বকে এর ব্যবহার ঠিক নয়। এক কাপ গরম জলে এক টেবিল চামচ আপেল সিডার ভিনেগার মিশিয়ে নিন। এবার তুলার সাহায্যে কার্যকর জায়গায় এই মিশ্রণটি লাগান। এবার এটি শুকনো ছেড়ে রেখে ঠান্ডা জলে ধুয়ে ফেলুন। ত্বকের অ্যালার্জি থেকে মুক্তি পেতে আপনি দিনে অন্তত দু'বার এটি করতে পারেন।


বেকিং সোডা : আপনি যদি ত্বকের অ্যালার্জিজনিত সমস্যায় ভুগে থাকেন তবে আপনি বেকিং সোডা ব্যবহার করতে পারেন। তবে এটি ব্যবহার করার সময় কিছুটা সতর্কতা অবলম্বন করা দরকার। এটি ত্বকে পিএইচ ভারসাম্য বজায় রাখতে সহায়তা করে।


জানুন ব্যাবহারের পদ্ধতি : ত্বকে বেকিং সোডা ব্যবহার করতে প্রথমে এক চামচ বেকিং সোডা নিন এবং এতে সামান্য জল যোগ করুন। এখন একটি মসৃণ পেস্ট তৈরি করুন এবং এটি অ্যালার্জির জায়গায় লাগান। এটি ১০ মিনিটের পরে ধুয়ে ফেলুন। অ্যালার্জি থেকে মুক্তি পেতে আপনি এটি দিনে ৩-৪ বার ব্যবহার করতে পারেন।

No comments