Page Nav

HIDE

Grid Style

GRID_STYLE

Post/Page

Weather Location

Breaking News:

latest

*জানুন, বাস্তুশাস্ত্র মতে, বাড়ির সিঁড়ির নীচে কখনোই এই জিনিস গুলি রাখবেন না :*

ঘরের সুখ ও শান্তি বজায় রাখতে বাস্তুশাস্ত্রের গুরুত্ব অপরিসীম। বাস্তু ঘরের প্রতিটি কোণ সম্পর্কে আমাদের জানায় যে কোথায় কী রাখতে হয় এবং কী রাখতে নেই। বাস্তুশাস্ত্র অনুযায়ী শোওয়ার ঘর, রান্নাঘর, স্নানঘরের মতো সিঁড়ির তলাও একই রকম গুরু…

 



ঘরের সুখ ও শান্তি বজায় রাখতে বাস্তুশাস্ত্রের গুরুত্ব অপরিসীম। বাস্তু ঘরের প্রতিটি কোণ সম্পর্কে আমাদের জানায় যে কোথায় কী রাখতে হয় এবং কী রাখতে নেই। বাস্তুশাস্ত্র অনুযায়ী শোওয়ার ঘর, রান্নাঘর, স্নানঘরের মতো সিঁড়ির তলাও একই রকম গুরুত্বপূর্ণ। অনেকে সিঁড়ির নীচের অংশকে স্টোররুম হিসেবে ব্যবহার করেন। সারা বাড়ির সমস্ত বাতিল অপ্রয়োজনীয় জিনিস অনেকে জড়ো করেন সিঁড়ির নীচে। কিন্তু বাস্তুশাস্ত্র তা মোটেও অনুমোদন করছে না। দেখে নিন বাস্তু অনুযায়ী সিঁড়ির নীচে কী রাখা উচিত এবং কী রাখা উচিত নয়।



:- বসার ঘর - অনেক বাড়িতে হলঘরের মধ্যে দিয়েই সিঁড়ি উঠে যায়। সিঁড়ির নীচেই সোফা সেট পেতে অতিথিদের জন্য বসার ব্যাবস্থা করেন অনেক। বাস্তু অনুযায়ী এটা কিন্তু একেবারেই অনুচিত।


:- রান্নাঘর - সিঁড়ির তলা এমন একটা জায়গা যেখানে নেগেটিভ এনার্জি স্টোর হয়ে থাকে। তাই সেখান রান্নাঘর করা হলে খাবারের মধ্যে দিয়ে প্রচুর পরিমাণে নেগেটিভ এনার্জি শরীরে প্রবেশ করে। রান্নাঘর যেহেতু বাড়ির অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ, তাই সেই সিঁড়ির নীচে না করাই ভালো।


:- বিছানা - অনেকে সিঁড়ির নীচে চৌকি পেতে একটা অতিরিক্ত বিছানার ব্যবস্থা করেন। কিন্তু জেনে রাখুন সিঁড়ির নীচে বিছানা পাতা মোটেও ভালো নয়। সিঁড়ির নীচে বেশিদিন শুলে সেই ব্যক্তি অসুস্থ হয়ে পড়তে পারেন।


:- ঠাকুরঘর - ছোট বাড়িতে ঠাকুরের আসন পাতার মতো জায়গার বড়ই অভাব। তাই বলে কোনও ভাবেই সিঁড়ির নীচে ঠাকুরঘর রাখা যাবে না। এতে ভগবান অত্যন্ত রুষ্ট হন। সিঁড়ির নীচে ভুলেও ঠাকুরের আসন পাতা উচিত নয়।


:- সিঁড়ির নীচে কী রাখতে পারবেন :


সিঁড়ির নীচ বাইক, গাড়ি বা সাইকেল রাখতে পারেন। সিঁড়ির নীচে গ্যারাজ করা যেতে পারে। এছাড়া ঝাড়ু বা জুতো রাখার তাকও সিঁড়ির নীচে রাখতে পারেন। তবে সিঁড়ির তলাকে কখনোই ডাস্টবিনে পরিণত করবেন না। বাড়ির অন্য অংশের মতো এটিকেও অবশ্যই প্রতিদিন ঝাঁট দিয়ে মুছে নেবেন। সিঁড়ির নীচে আলোর ব্যবস্থাও যেন অবশ্যই থাকে।

No comments