Page Nav

HIDE

Grid Style

GRID_STYLE

Post/Page

Weather Location

Breaking News:

latest

*জেনে নিন, স্মৃতিশক্তি বাড়াতে সন্তানকে কী খাওয়াবেন :*

ছোট থেকে বড়, প্রায় সব বয়সের ছাত্র ছাত্রীরাই এখন পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে। পরীক্ষার সময় ছাত্র ছাত্রীদের ওপর যথেষ্ট ধকল পড়ে। তাই এই সময় তাদের ভালো করে খাওয়া দাওয়া জরুরি।
পরীক্ষার সময় শুধু পড়া মুখস্থ করলেই হল না, সে পড়া মনে…



ছোট থেকে বড়, প্রায় সব বয়সের ছাত্র ছাত্রীরাই এখন পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে। পরীক্ষার সময় ছাত্র ছাত্রীদের ওপর যথেষ্ট ধকল পড়ে। তাই এই সময় তাদের ভালো করে খাওয়া দাওয়া জরুরি।


পরীক্ষার সময় শুধু পড়া মুখস্থ করলেই হল না, সে পড়া মনে রাখা দরকার। তাই এই সময় এমন খাবার ওদের খাওয়ানো দরকার, যা স্মৃতিশক্তি প্রখর করতে সাহায্য করবে। এখানে আমরা এমন কতগুলি খাবারের কথা তুলে ধরলাম, যা স্মৃতিশক্তি ভালো রাখতে বিশেষ ভাবে উপযোগী।


ডার্ক চকোলেট :


পরীক্ষার সময় সন্তানকে একটু সুইট ট্রিট দিতেই পারেন। বিশেষ করে রোজ ছোট এক টুকরো ডার্ক চকোলেট ওকে খাওয়ান। ডার্ক চকোলেটে আছে প্রচুর পুষ্টিকর উপাদান। এর মধ্যে আছে ফ্ল্যাভোনয়েড, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, যা মনকে তরতাজা করে তোলে। এর ফলে পড়াশোনায় বেশি মন দেওয়া যায়। মানসিক ক্লান্তি ও অবসাদ দূর করতেও অত্যন্ত উপকারী ডার্ক চকোলেট।


বাদাম ও বীজ :


যে কোনও বয়সের ছাত্র ছাত্রীদের রোজ একমুঠো করে বাগাম ও বীজ খাওয়া জরুরি। আমন্ড হোক শিয়া সিড, যে কোনও ধরনের বাদাম ও বীজ রোজ খাওয়ান আপনার সন্তানকে। এর মধ্যে আছে প্রচুর পরিমাণ ফ্যাট, প্রোটিন ও ফাইবার, যা অনেকক্ষণ ধরে পড়াশোনা করার এনার্জি দেয়।


ডিম :

ব্রেইন বুস্টিং খাবার হিসেবে ডিমের কোনও তুলনা নেই। কারণে ডিমের মধ্যে আছে সেলেনিয়াম, ওমেগা -৩ এবং আমাদের নার্ভকে ভালো রাখার উপযোগী উপাদান। দিনের যে কোনও সময় ডিম খাওয়া যেতে পারে। বাচ্চাদের প্রতিদিনই ডিমসেদ্ধ, এগ হোয়াইট বা ওমলেট দিতে পারেন।


নানান রকমের সাক - সবজি :


সবুজ তরি তরকরি তো খেতেই হবে, সঙ্গে লাল এবং কমলা সবজিও প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় চাই। এর ফলে মন আরও সজাগ ও সক্রিয় হবে। আপনার সন্তান যদি পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নেয়, তাহলে ওকে রোজ নানা রঙের তরি তরকারি খাওয়ান।


ব্রাউন রাইস, গম, মিলেটের মতো গোটা শস্যে আছে প্রচুর পরিমাণে ভিটমিন বি এবং গ্ল‍ুকোজ। সঠিক ভাবে কাজ করার মস্তিষ্কের যা একান্ত প্রয়োজন। পাশাপাশি এগুলি অনেকক্ষণ পেট ভরিয়ে রাখে বলে আপনার সন্তান টানা দীর্ঘক্ষণ পড়াশোনা করতে পারবে।


বেরি :


স্ট্রবেরি হোক বা ব্ল‌ুবেরি, বেরির মধ্যে আছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট। এছাড়ার বেরির মধ্যে যে সব উপাদান রয়েছে তা মস্তিষ্ককে সচল ও সক্রিয় রাখতে সাহায্য করে। স্মৃতিশক্তি প্রখর হয় বেরি খেলে। পরীক্ষার সময় সন্তানকে প্রতিদিন অবশ্যই দিন গুজবেরি বা আমাদের ভারতীয় আমলকি।


ওটমিল :


ব্রেকফাস্ট হিসেবে তৈরি করা সবথেকে সহজ হল ওটমিল। এটি পুষ্টিগুণেও ঠাসা। আমাদের মস্তিষ্কের জন্যও ওটমিল একান্ত প্রয়োজনীয়। বিশেষ করে বাড়ন্ত বাচ্চাদের জন্য ওটমিল খুব উপকারী। এর মধ্যে আছে ভিটামিন ই, পটাসিয়াম এবং জিংক।

No comments