Page Nav

HIDE

Grid Style

GRID_STYLE

Post/Page

Weather Location

Breaking News:

latest

সোহিনীর মতো বড়ো ডায়ালের ঘড়ি এখনও কতটা ফ্যাশনেবল

ফ্যাশন আর স্টাইলের মধ্যেকার ফারাকটা জানেন তো? স্টাইল হচ্ছে আপনার একেবারে নিজস্ব ব্যক্তিত্বের পরিচায়ক। ফ্যাশন নিয়ে যাঁদের মাথাব্যথা, তাঁরা আপনার পছন্দ নিয়ে দ্বিমত পোষণ করলেও আপনি কিন্তু নিজের মতে স্টাইল স্টেটমেন্ট তৈরি করতেই পারেন…





ফ্যাশন আর স্টাইলের মধ্যেকার ফারাকটা জানেন তো? স্টাইল হচ্ছে আপনার একেবারে নিজস্ব ব্যক্তিত্বের পরিচায়ক। ফ্যাশন নিয়ে যাঁদের মাথাব্যথা, তাঁরা আপনার পছন্দ নিয়ে দ্বিমত পোষণ করলেও আপনি কিন্তু নিজের মতে স্টাইল স্টেটমেন্ট তৈরি করতেই পারেন! তবে বড়ো ডায়ালের ঘড়ি, বিশেষ করে ছেলেদের ঘড়ি মেয়েরা পরতে চাইলে ফাশন বোদ্ধারাও দ্বিরুক্তি করেন না। আর যদি আপনি তা ঠিকমতো ক্যারি করতে পারেন, তা হলে তো কোনও সমস্যাই নেই! বরং আপনার সিম্পল পোশাকে তা যোগ করবে অন্যতর মাত্রা, ভিড়ের মধ্যেও সোহিনীর মতোই আপনি আলাদা করে নজর কাড়বেন।


যাঁরা খুব একটা বেশি অ্যাকসেসরিজ় পরতে পছন্দ করেন না এবং প্রতিদিন ক্লিন-কাট ফরমাল পোশাকে (ট্রাউজ়ার্স-শার্ট, স্কার্ট-টপ, সালোয়ার-কুর্তা বা শাড়ি) পরে অফিস যান, তাঁদের হাতে বড়ো ডায়ালের একটি ফ্যাশনেবল ঘড়ি থাকলে আর কিছুর প্রয়োজনই পড়ে না। সুবিধে হচ্ছে, সনাতন ভারতীয় পোশাক বা স্মার্ট পশ্চিমি ক্যাজ়ুয়ালস, সবের সঙ্গেই দারুণ মানায় ম্যাসকুলিন রিস্টওয়াচ। সঙ্গে সোহিনীর মতোই সামান্য কাজল, লিপস্টিকের ছোঁয়া থাকলে তো কথাই নেই!


স্টেনলেস স্টিল ডায়াল আর চামড়ার স্ট্র্যাপের ঘড়ি খুব স্মার্ট দেখায়, স্টিলের ব্যান্ডও চলবে। তবে ডায়ালে পাথর বসানো বড়ো ঘড়ি কিন্তু দেখতে খুব একটা ভালো লাগে না। রোজ পরার জন্য স্লিক ডিজ়াইনই ভালো। যে হাতে বড়ো ঘড়িটি পরছেন, সেই হাতে আর অন্য কিছু পরার দরকার নেই। অন্য হাতে হালকা ব্রেসলেট বা আংটি পরা চলে। একেবারে কিছু না পরলেও দেখতে ভালো লাগবে।

No comments