Page Nav

HIDE

Grid Style

GRID_STYLE

Post/Page

Weather Location

Breaking News:

latest

জেনে নিন, কিছু ঘরোয়া বিউটি টিপস, সুন্দর আকর্ষনীয় ঠোঁট পেতে

আমাদের সুন্দর হয়ে ওঠার অন্যতম অঙ্গ হল আমাদের ঠোঁট। হাল্কা ফোলা, একটু বড়, লাল ঠোঁট, অনেকটা গোলাপের পাপড়ির মতো। এরকম সুন্দর ঠোঁটই তো আপনি চান। কিন্তু অনেক সময়ে এরকম ঠোঁট না হয়ে পাতলা, খানিক ফ্যাকাশে ঠোঁট আমাদের হয়ে যায়। যাদের এই সম…





আমাদের সুন্দর হয়ে ওঠার অন্যতম অঙ্গ হল আমাদের ঠোঁট। হাল্কা ফোলা, একটু বড়, লাল ঠোঁট, অনেকটা গোলাপের পাপড়ির মতো। এরকম সুন্দর ঠোঁটই তো আপনি চান। কিন্তু অনেক সময়ে এরকম ঠোঁট না হয়ে পাতলা, খানিক ফ্যাকাশে ঠোঁট আমাদের হয়ে যায়। যাদের এই সমস্যা তাঁরা কি করবেন খুব সহজ কিছু জিনিস মেনে চললেই আপনারা কিন্তু আকর্ষণীয় ঠোঁট পেতে পারেন।


-> প্লাম্পিং বাম ব্যবহার করুন :-


বাজারে এখন এই ধরণের বাম অনেক পাওয়া যায়। এই ধরণের প্লাম্পিং বামের চাহিদার কথা মাথায় রেখে অনেক কসমেটিক কোম্পানি প্লাম্পিং বাম ব্যবহার করে। এই ধরণের বাম সহজেই ঠোঁট হাইড্রেটেড করে। ফলে ঠোঁটের ভলিউম বেশ খানিকটা বেশি বলে মনে হয়। এতে ঠোঁট অনেক বেশি ভরাট আর বড় লাগে।


-> কনসিলার ব্যবহার করে দেখুন :-


কনসিলার ঠোঁটে ব্যবহার করার কথা নিশ্চয়ই খুব একটা শোনেননি আপনি। আসলে ঠোঁট আকর্ষণীয় করে তুলতে কনসিলার খুব ভাল কাজ দেয়। ঠোঁটে আপনি লিপস্টিক ব্যবহার করুন বা লিপ গ্লস, ঠোঁট আগে একে নিন এই কনসিলার দিয়ে। এতে ঠোঁট সুন্দর করে ডিফাইনড বা হাইলাইটেড হবে। আপনি একটু বড় করে ঠোঁট একে নিতে পারেন। তার পর ঠোঁট ভরাট করতে পারেন। রঙ করার পর আবার একটু কনসিলার দিয়ে ফাইনাল টাচ দিয়ে দিন। ঠোঁট পারফেক্ট লাগবে।


-> লিপস্টিকের ব্যবহার :-


হাল্কা লিপস্টিক তো ব্যবহার করবেন। কিন্তু সেটাই বা ঠোঁটে কীভাবে লাগাবেন যাতে একটা মোহময়ী ঠোঁট পেতে পারেন! যে কোনও লিপস্টিকই আগে গোটা ঠোঁটে দিয়ে দেবেন না। ঠোঁটের মাঝখানে একটু ডিপ করে আগে লিপস্টিক দিয়ে দিন। এবার আঙুলে সেই লিপস্টকই অল্প নিয়ে আঙুলের সাহায্যে ঠোঁটের বাকি অংশে শেডের মতো করে দিন। এতেও দেখবেন ঠোঁট বেশ সুন্দর লাগবে।


-> হাইলাইট করুন :-


ঠোঁট হাইলাইট করতে হলে আগে ঠোঁটের চারপাশটা একটু হাল্কা করে শেড করে নিন। কনট্যুর এক্ষেত্রে আপনাকে সাহায্য করবে। মেকআপ ব্রাশ নিয়ে কনট্যুর লাগিয়ে থুৎনিতে হাল্কা শেড করে নিন। অল্প গালের কাছেও করতে হবে। আর আঙুলে অল্প নিয়ে ঠোঁট আর নাকের মাঝে যে সরু অংশ, সেখানে অল্প দিন। এবার দেখুন, ঠোঁট খুব সুন্দর হাইলাইটেড হয়ে গেছে।


কিছু ঘরোয়া উপাদান


আমরা আপনাদের কিছু ঘরোয়া উপাদানের কথা বলব, যা নিয়ম করে ব্যবহার করলে ঠোঁটে কোনও মেকআপ ছাড়াই খুব সুন্দর দেখতে লাগবে।


মধু :- 

মধু নিয়ে ঠোঁটের ওপর একটু মোটা করে দিন। দেখবেন যেন পড়ে না যায়। তারপর সেটি সারা রাত রেখে দিন। পরের দিন সকালে উঠে ঠোঁট পরিষ্কার করে নিন। দেখবেন খুব সুন্দর নরম ঠোঁট পেয়েছেন।


শশা :-

একটা শশা স্লাইস করে কেটে একটা স্লাইস দুই ঠোঁটের মাঝে ধরে থাকুন ৫ মিনিট মতো। শশার ভিতর থাকা জল ঠোঁট টেনে নেবে। ফলে ঠোঁট হাইড্রেটেড হয়ে যাবে। এতে ঠোঁট ফাটার সমস্যাও হবে না আর ঠোঁট আস্তে আস্তে সুন্দর হয়ে উঠবে।


নারকেল তেল :-

নারকেল তেল ঠোঁটের জন্য খুবই ভাল। বিশেষ করে এখন থেকে ব্যবহার করলে শীতে আর ঠোঁট ফাটবে না। হাতে অল্প নারকেল তেল নিয়ে অল্প রাব করে ঠোঁটে দিন লিপ বামের মতোই। ১০ মিনিট মতো ঠোঁটে লাগান। তারপর মুছে ফেলুন। রোজ যদি এটি করতে পারেন, ১৫ দিনের মধ্যেই আপনি পার্থক্য বুঝতে পারবেন।


ঠোঁট স্ক্রাবার :-


চিনি আর লেবুর রস

ঠোঁট রোজ পরিষ্কার করা দরকার। ঠোঁটের ওপর যদি ডেড স্কিন সেল জমা হতে থাকে, তাহলে ঠোঁট কিন্তু ফোলা ফোলা আর সুন্দর লাগবে না। তার জন্য বাড়িতেই বানিয়ে নিন স্ক্রাবার। একটু চিনি আর লেবুর রস হলেই হয়ে যাবে। দুটি উপকরণ মিশিয়ে ঠোঁটে ঘষুন হাল্কা হাতে। তারপর ধুয়ে নিন। খুব ভাল কাজ দেয় এটি। সপ্তাহে তিন দিন করতেই পারেন।

No comments