Page Nav

HIDE

Grid Style

GRID_STYLE

Post/Page

Weather Location

Breaking News:

latest

কলকাতা হাইকোর্টে ডেটা এন্ট্রি অপারেটরের চাকরীর পাওয়ার সুবর্ন সুযোগ,এইভাবে করুন আবেদন!

সরকারী বিভাগে ডেটা এন্ট্রি অপারেটরের পদে নিয়োগের জন্য প্রস্তুতি নেওয়া প্রার্থীদের জন্য বড় খবর। ডেটা এন্ট্রি অপারেটর (ডিইও) সহ মোট ১৫৯টি পদের জন্য কলকাতা হাইকোর্ট কর্তৃক নিয়োগের বিজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। এর মধ্যে ১৫৩ টি শূন্যপ…





সরকারী বিভাগে ডেটা এন্ট্রি অপারেটরের পদে নিয়োগের জন্য প্রস্তুতি নেওয়া প্রার্থীদের জন্য বড় খবর। ডেটা এন্ট্রি অপারেটর (ডিইও) সহ মোট ১৫৯টি পদের জন্য কলকাতা হাইকোর্ট কর্তৃক নিয়োগের বিজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। এর মধ্যে ১৫৩ টি শূন্যপদ ডিইওর যা ২০২১ সালের ৪ জানুয়ারী আদালত জারি করা বিজ্ঞাপনে (নং ৩৩-আরজি) অনুযায়ী ডিইও পদে যোগ্য প্রার্থীদের পাশাপাশি সিস্টেম অ্যানালিস্ট, সিনিয়র প্রোগ্রামার এবং সিস্টেম ম্যানেজারের জন্য আবেদনগুলি আহ্বান করা হয়েছে। আবেদন করতে ইচ্ছুক প্রার্থীরা কলকাতা হাইকোর্টের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে প্রদত্ত অনলাইন আবেদন ফর্মের মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন। কলকাতা হাইকোর্টে ডিইও নিয়োগ ২০২১ এর অনলাইন আবেদনের প্রক্রিয়া সোমবার, ১১ জানুয়ারী দুপুর ১২ টা থেকে শুরু হবে এবং প্রার্থীরা ২১ জানুয়ারির মধ্যে আবেদন এবং নির্ধারিত ফি প্রদান করতে পারবেন।


কে কে আবেদন করতে পারবেন ?


স্বীকৃত বোর্ড বা ইনস্টিটিউট থেকে দশম শ্রেণিতে উত্তীর্ণ প্রার্থী এবং স্বীকৃত ইনস্টিটিউট থেকে কমপক্ষে এক বছরের ডিপ্লোমা কম্পিউটার আবেদনে কলকাতা হাইকোর্টে বিজ্ঞাপন ডেটা এন্ট্রি অপারেটর (ডিইও) পদে আবেদন করতে পারবেন।  এছাড়াও, ১ জানুয়ারী ২০২১ সালের মধ্যে প্রার্থীদের বয়স ১৮ বছরের কম এবং ৪০ বছরের বেশি হওয়া উচিৎ নয়। তবে সংরক্ষিত বিভাগের প্রার্থীদের সর্বোচ্চ বয়সসীমা শিথিল করার বিধান করা হয়েছে। সিস্টেম অ্যানালিস্ট, সিনিয়র প্রোগ্রামার এবং সিস্টেম ম্যানেজারের পদগুলির জন্য নির্ধারিত যোগ্যতার মানদণ্ডের জন্য উপরে বর্ণিত নিয়োগের বিজ্ঞাপনের লিঙ্কে যান।


নির্বাচন কীভাবে হবে?


কলকাতা হাইকোর্টে ডিইও পদে প্রার্থীদের নির্বাচন লিখিত পরীক্ষা, ডেটা এন্ট্রি স্পিড টেস্ট এবং ইন্টারভিউ / ভিভা-ভোসের মাধ্যমে করতে হবে। প্রথম পর্যায়ে এক ঘণ্টার লিখিত পরীক্ষায় কম্পিউটার দক্ষতা, সাধারণ জ্ঞান, গণিত ও ইংরেজি ভাষা সম্পর্কিত মোট ৫০ টি প্রশ্ন থাকবে। প্রতিটি সঠিক উত্তরের জন্য ২ নম্বর দেওয়া হবে এবং একটি  ভুল উত্তরের জন্য নম্বর কেটে নেওয়া হবে। প্রথম পর্যায়ে সফল হতে আপনার কমপক্ষে ৪০ নম্বর থাকতে হবে।


এর পরে, দ্বিতীয় পর্বে প্রার্থীদের ডেটা এন্ট্রি স্পিড টেস্ট (কী ডিপ্রেশন টেস্ট) দিতে হবে। এই পর্বের জন্য ৪০০ চিহ্ন নির্ধারিত হয়। দ্বিতীয় পর্যায়ে সফল প্রার্থীরা তৃতীয় পর্বের সাক্ষাৎকার / ভাইভা-ভোসের জন্য আমন্ত্রিত হবেন। এই পর্যায়ের জন্য ১০০ নম্বর নির্ধারিত হয়। মেধা তালিকা অনুযায়ী প্রার্থীদের পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে চূড়ান্ত করা হবে।

No comments