Page Nav

HIDE

Grid Style

GRID_STYLE

Post/Page

Weather Location

Breaking News:

latest

শীতে খুব সকালে উঠতে অনুসরণ করুন এই ঘরোয়া টোটকা

শীতকাল বেশিরভাগ মানুষের শরীরে আলস্যতা পূর্ণ করে। যার কারণে,  বেশি ঘুমানো এবং খুব সকালে উঠা সহজ কাজ নয়। যদিও এর পিছনের কারণটি আজকাল খারাপ জীবনযাত্রা, তবে বিজ্ঞান এবং জৈবিক অঞ্চলগুলিকেও দায়ী করা হয়েছে। এর বাইরে প্রাকৃতিক সেটআপও এ…




শীতকাল বেশিরভাগ মানুষের শরীরে আলস্যতা পূর্ণ করে। যার কারণে,  বেশি ঘুমানো এবং খুব সকালে উঠা সহজ কাজ নয়। যদিও এর পিছনের কারণটি আজকাল খারাপ জীবনযাত্রা, তবে বিজ্ঞান এবং জৈবিক অঞ্চলগুলিকেও দায়ী করা হয়েছে। এর বাইরে প্রাকৃতিক সেটআপও একটি বড় কারণ হিসাবে বিবেচিত হয়। কারণ কোথাও, আমাদের প্রাকৃতিক এবং শারীরিক ক্রিয়াকলাপগুলি এই প্রাকৃতিক সেটআপের সাথে জড়িত এবং এর ফলে মানুষ শীতকালে অন্যান্য ঋতুর তুলনায় বেশি ঘুমায়।



শীতে অতিরিক্ত ঘুমের কারণ: -


১. মেলাটোনিনের বর্ধিত মাত্রা :


আলো ঘুমকে  নিয়ন্ত্রণে রাখে বলে বিশ্বাস করা হয়। যখনই মস্তিষ্কের কোনও পার্টিকুলার অংশ আলোর সংস্পর্শে আসে, তখন এটি হঠাৎ সক্রিয় হয়ে যায়। এটি মেলাটোনিন যা দেহের তাপমাত্রা এবং হরমোনগুলি নিয়ন্ত্রণ করে। এই তিনটি কারণে শরীরে ঘুমের ইনফ্লুয়েঞ্জা থাকে। মেলাটোনিনের কথা বললে ঘুম বেড়ে যায়।


২.তাপমাত্রা :


 সহজভাবে, শরীরকে ঘুমের পর্যায়ে আনতে, তাপমাত্রা শীতল হতে হবে। সুতরাং শীত যখন অগ্রসর হয়, আপনি আরও  ভাল ঘুম পান।



৩. হরমোনের ভারসাম্যহীনতা :


শীতকালে, লোকেরা প্রায়শই তাদের বাড়িগুলি বন্ধ রাখে এবং কৃত্রিম বৈদ্যুতিন লাইট ব্যবহার করে, যা প্রাকৃতিক হরমোন ভারসাম্যকে ব্যাহত করে এবং ঘুম বাড়ানোর হরমোনকে ট্রিগার করে ।



৪.শীতের খাবার: 


শীতে খাওয়া খাবার গ্রীষ্মের তুলনায় উষ্ণ এবং বেশি শক্তিযুক্ত । এমন পরিস্থিতিতে যখন আপনি নিজের শরীরকে উষ্ণ রাখতে আরও বেশি খাবার খান, তখন এটি আপনার দেহের তাপমাত্রাকে ভারসাম্য দেয়, যার কারণে শরীর বিশ্রাম পায় এবং আপনি ঘুমোতে শুরু করেন।



৫. ভুল জীবনযাপন :


বেশিরভাগ মানুষ শীতে শারীরিক ক্রিয়াকলাপ করা এড়িয়ে যায়। এক্ষেত্রে শীত যত বেশি বাড়ে, শরীর ততই স্থিতিশীল হয়। যার কারণে শরীরে ফ্যাট এবং কার্বহাইড্রেট উৎপাদন শুরু হয়। যারা ঘুম বাড়াতে কাজ করে।



এভাবে আপনি খুব সকালে উঠতে পারবেন !


- রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে জল পান করুন এটি সকালে ঘুম থেকে ওঠার সাথে সাথে শরীরকে জাগানো আরও সহজ করে তোলে।

- সক্রিয় থাকার জন্য অনুশীলন করুন, যা শরীরের রুটিন সেট করতে সহায়তা করবে।

- কয়েক দিন একটানা একসাথে ঘুমিয়ে ও জাগ্রত হয়ে শরীরের রুটিনটি সেট করার চেষ্টা করুন।

বিছানা থেকে উঠার কিছুক্ষণ পরে স্নান করুন। যা আপনার দেহের তাপমাত্রা পরিবর্তন করবে এবং আপনাকে সক্রিয় বোধ করাবে।

- অলসতা এড়াতে স্বাস্থ্যকর এবং হালকা খাবার গ্রহণ করুন।

No comments