Page Nav

HIDE

Grid Style

GRID_STYLE

Post/Page

Weather Location

Breaking News:

latest

বিয়ের আগে মনসুর আলী খানের সামনে এরকম একটি কঠিন শর্ত রেখেছিলেন শর্মিলা ঠাকুর

বলিউডের খ্যাতিমান অভিনেত্রী শর্মিলা ঠাকুর আজ ৭৬ বছর বয়সে পরিণত হয়েছেন। সত্যজিৎ রায়ের ছবি 'অপুর সংসার' থেকে জনপ্রিয়তা অর্জনকারী শর্মিলার চলচ্চিত্রের কেরিয়ারে 'আধাধান', 'মেরা প্রেম', 'সাফার', &#…



বলিউডের খ্যাতিমান অভিনেত্রী শর্মিলা ঠাকুর আজ ৭৬ বছর বয়সে পরিণত হয়েছেন। সত্যজিৎ রায়ের ছবি 'অপুর সংসার' থেকে জনপ্রিয়তা অর্জনকারী শর্মিলার চলচ্চিত্রের কেরিয়ারে 'আধাধান', 'মেরা প্রেম', 'সাফার', 'কাশ্মীর কি কালী', 'মৌসাম', 'তালাশ', 'ওয়াক্ট', 'ফরার' রয়েছে। ',' আউ ছবিতে অভিনয় ছাড়াও অভিনেত্রী ক্রিকেটার মনসুর আলী খান পাটৌদির কারণেও খবরে ছিলেন। দীর্ঘ জীবন কাটানোর পরে ১৯৬৯ সালে দু'জনেই বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন, তবে খুব কম লোকই জানেন যে, শর্মিলা বিয়ে করার জন্য মনসুরের সামনে একটি কঠিন শর্ত রেখেছিলেন।


মনসুর প্যারিসে বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছিলেন


শর্মিলা ও মনসুরের এক বন্ধুর মাধ্যমে ১৯৬৫ সালে প্রথম দেখা হয়েছিল। প্রথম সভায় দুজনেই একে অপরকে পছন্দ করেছেন। শর্মিলা ইতিমধ্যে ক্রিকেটে খুব আগ্রহী ছিলেন, কিন্তু যখন তার মনসুরের সাথে দেখা হয়েছিল, তখন তিনি মনসুরকে দেখে পাগল হয়ে যান। যদিও মনসুরের হিন্দি চলচ্চিত্রের কোনও নির্দিষ্ট জ্ঞান ছিল না। দু'জন একে অপরকে বুঝতে ৪ বছর সময় নিয়েছিলেন, এরপরে মনসুর প্যারিসে শর্মিলাকে বিয়ের প্রস্তাব দেন। এখানে শর্মিলা বিয়ে কততে রাজি হন।



শর্মিলার কঠিন শর্ত কী ছিল?


এই প্রস্তাবে রাজি হওয়ার সাথে সাথেই শর্মিলা মনসুরের সামনে একটি শর্ত রেখেছিল যে, সে তখনই তাকে বিয়ে করবে যখন সে, তার ম্যাচে তিনটি ছক্কা মারবে অর্থাৎ সিক্সারের হ্যাটট্রিক করবে। পরের ম্যাচে মনসুর তিনটি ছক্কা মেরে, পুরো দেশের সামনে তার প্রেমের প্রমাণ দিয়েছিলেন এবং ১৯৬৯ সালের ২৭ ডিসেম্বর দু'জনেই বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন।


শর্মিলা ঠাকুর ফিল্মফেয়ার ম্যাগাজিনের কভারের জন্য বিকিনি ফটোশুট করা বলিউডের প্রথম অভিনেত্রী। এই ফটোশুটটি 'অন ইভনিং দ্য প্যারিস' চলচ্চিত্রের মুক্তির জন্য করা হয়েছিল, যার জন্য বিকিনি পোস্টগুলি প্রচারের জন্য পুরো মুম্বাইয়ের বড় বড় হোর্ডিংয়ে ছিল'।


এদিকে মনসুরের মা শর্মিলার সাথে দেখা করতে মুম্বাই আসছিলেন। শর্মিলা এই বিষয়টি জানতে পেরে তিনি উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছিলেন যে, এই জাতীয় পোস্টার দেখে মনসুরের মা সম্পর্ক ছিন্ন করবেন না তো। মন খারাপ হয়ে যাওয়ার পরে শর্মিলা তাৎক্ষণিকভাবে চলচ্চিত্র নির্মাতাদের মুম্বাইয়ের সমস্ত পোস্টার সরিয়ে দিতে বলেছিলেন।

No comments