Page Nav

HIDE

Grid Style

GRID_STYLE

Post/Page

Weather Location

Breaking News:

latest

এগুলি হল চলমান বায়ু দূষণে কাশি প্রতিরোধের কিছু নির্ভরযোগ্য টিপস!

জনপ্রিয় বিশ্বাসের বিপরীতে কাশি স্বাস্থ্যের পক্ষে খারাপ নয়। এটি একটি সম্পূর্ণ স্বাভাবিক এবং প্রাকৃতিক  ক্রিয়াকলাপ যা জ্বালাপোড়া থেকে বাতাসের পথগুলি পরিষ্কার করতে সহায়তা করে। কাশি সাধারণত অস্থায়ী হয় এবং একবার গলা পরিষ্কার হয…






জনপ্রিয় বিশ্বাসের বিপরীতে কাশি স্বাস্থ্যের পক্ষে খারাপ নয়। এটি একটি সম্পূর্ণ স্বাভাবিক এবং প্রাকৃতিক  ক্রিয়াকলাপ যা জ্বালাপোড়া থেকে বাতাসের পথগুলি পরিষ্কার করতে সহায়তা করে। কাশি সাধারণত অস্থায়ী হয় এবং একবার গলা পরিষ্কার হয়ে যায় । তবে একটি অবিরাম কাশি গলায় ব্যথার সৃষ্টি করে এবং সারা রাত আপনাকে উদ্বিগ্ন রাখতে পারে।



এটি অ্যালার্জি, ধুলো, ধোঁয়া দ্বারা সৃষ্ট হতে পারে যা শীতের মরশুমে চরম খারাপ হয়ে যায়। যদি আপনিও গলা ব্যথায় লড়াই করে যাচ্ছেন তবে স্বস্তির জন্য আপনি প্রাকৃতিক প্রতিকার নিতে পারেন। কিছু ঘরোয়া প্রতিকার বায়ু চলাচলে পরিষ্কার করার ক্ষেত্রে একেবারে কার্যকর, যা শ্বাস প্রশ্বাসকে আরও সহজ করে তোলে। তবুও, যদি সমস্যাটি দীর্ঘ সময় ধরে থাকে, তবে এটি ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করার পরামর্শ দেওয়া হবে। কিছু দেশীয় কৌশল সম্পর্কে জেনে রাখা আপনার পক্ষে উপকারী হতে পারে।


ইউক্যালিপটাস তেল


ইউক্যালিপটাস তেল আপনার গলা পরিষ্কার করতে এবং আরাম দিতে পারে। দ্রুত ফলাফলের জন্য, নারকেল বা অলিভ অয়েলে ইউক্যালিপটাসের কয়েক টুকরো যোগ করুন এবং মিশ্রণটি বুকে এবং গলায় ঘষুন। আপনি ইউক্যালিপটাসের বাষ্পও নেওয়ার চেষ্টা করতে পারেন। এক কাপ গরম জলে কয়েক টুকরো ইউক্যালিপটাস তেল মিশিয়ে বাষ্পটি ভিতরে ঢুকিয়ে নিন।



মধু


মধু হ'ল সর্দি এবং কাশির জন্য একটি সেরা চিকিৎসা এবং বিশ্বাসযোগ্য দেশি রেসিপি। এর অ্যান্টি-অক্সিডেন্টস, অ্যান্টি-মাইক্রোবিয়াল এবং অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি বৈশিষ্ট্য গলা ব্যথা উপশম করে। সম্প্রতি, একটি গবেষণা প্রকাশ করেছে যে কাশি এবং সর্দি নিরাময়ের ক্ষেত্রে কাউন্টার ওষুধের চেয়ে মধু ভাল। কার্যকর ফলাফলের জন্য আপনাকে ভেষজ চা বা গরম জল এবং লেবু মিশ্রণে দুই চামচ মধু মিশিয়ে প্রতিদিন দুবার পান করতে হবে।



আদা 


আদা এর প্রদাহ বিরোধী গুণাবলী গলার পর্দা পরিষ্কার করতে পারে এবং কাশির সমস্যা হ্রাস করতে পারে। আদা চা পান করা বা মধু এবং গোল মরিচের সাথে আদা রস খাওয়া কাশির জন্য অন্যতম কার্যকর নিরাময়। তবে আদা চা ব্যবহারের অতিরিক্ত ব্যবহার পেটের অস্থিরতা বা পেটের জ্বালা হতে পারে।



গোলমরিচ 


পেপারমিন্টে মেন্থল নামে একটি যৌগ পাওয়া যায় যা গলায় স্নায়ু শেষ করতে পারে যা কাশি সৃষ্টি করে। এটি ব্যথা এবং গলা ব্যথা থেকে মুক্তি দিতে পারে। এছাড়াও, গোলমরিচ ভিড় কমাতেও গোলমরিচ সাহায্য করতে পারে। কাঁচাজনিত সমস্যা হ্রাস করার জন্য দিনে ২-৩ বার পিপারমিন্ট চা পান করা সবচেয়ে কার্যকর উপায়। অ্যারোমা থেরাপি হিসাবে আপনি পেপারমিন্ট তেলও ব্যবহার করতে পারেন।

No comments