Page Nav

HIDE

Grid Style

GRID_STYLE

Post/Page

Weather Location

Breaking News:

latest

শীতকালে গরম জল দিয়ে স্নান করলে সাবধান! জানুন এর কয়েকটি ক্ষতিকারক প্রভাব সম্পর্কে

শীতের মরশুমে সকলেই গরম জল দিয়ে স্নান করতে পছন্দ করেন। ঠাণ্ডা আবহাওয়ায় গরম জলে স্নান করা আরামের হয়। স্নানের পরে মনে হয় আমাদের সমস্ত ক্লান্তি মুছে গেছে এবং আমাদের শরীর অসুস্থ হয়ে পড়েছে। শীতকালে, আমরা সকলেই গরম জল দিয়ে স্নান…





 শীতের মরশুমে সকলেই গরম জল দিয়ে স্নান করতে পছন্দ করেন। ঠাণ্ডা আবহাওয়ায় গরম জলে স্নান করা আরামের হয়। স্নানের পরে মনে হয় আমাদের সমস্ত ক্লান্তি মুছে গেছে এবং আমাদের শরীর অসুস্থ হয়ে পড়েছে। শীতকালে, আমরা সকলেই গরম জল দিয়ে স্নান করি তবে অনেক গবেষণায় বোঝা যায় যে গরম জলের তাপমাত্রা যদি ৩২ ডিগ্রি সেলসিয়াসের বেশি হয় তবে এটি আপনার স্বাস্থ্যের ক্ষতি করতে পারে। ৩২ ডিগ্রি সেলসিয়াস অবধি গরম জল স্নানের জন্য উপযুক্ত। এই গরম জল আপনার ত্বক এবং চুল ক্ষতি করতে পারে। বেশি পরিমাণে গরম জল গ্রহণ বা দীর্ঘক্ষণ গরম জলে স্নান করা আপনার ত্বক এবং স্বাস্থ্যের উভয় ক্ষেত্রেই বিরূপ প্রভাব ফেলবে। আসুন আমরা আপনাকে গরম জল দিয়ে স্নানের অসুবিধাগুলি সম্পর্কে বলি।



কিছু লোক ঠান্ডা এড়াতে কয়েক ঘন্টা বাথটাবে গরম জলে শুয়ে থাকে। দীর্ঘ সময় ধরে গরম জলে থাকা আপনার প্রজনন ক্ষমতাকেও প্রভাবিত করতে পারে। চিকিৎসকদের মতে, ৩০ মিনিটেরও বেশি সময় ধরে গরম জলে স্নান করা মানুষের উর্বরতা সম্পর্কিত সমস্যা বাড়ে। শীতের সময় খুব গরম জল আপনার সমস্যার কারণ হতে পারে।


গরম জল আপনার দেহের শক্তির স্তর হ্রাস করে। সকালে আপনি যখন গরম জলে স্নান করেন, আপনি অনেক স্বস্তি বোধ করেন। এটি আপনার শরীরকে সতেজ করে এবং এনার্জি দেওয়ার পরিবর্তে অলস করে তোলে।


 গরম জল দিয়ে স্নান করা ত্বকের পক্ষে ভাল নয়। এটি ত্বককে লাল করে তোলে এবং ফুসকুড়ি বা অ্যালার্জির কারণ হতে পারে। শুধু এটিই নয়, ত্বকের শুষ্কতাও বৃদ্ধি পায় এবং চুলকানির সমস্যাও রয়েছে।


গরম জলের কারণে ত্বকের টিস্যু ক্ষতিগ্রস্থ হয় এবং সেগুলি ক্ষতিগ্রস্থ হতে শুরু করে। এক্ষেত্রে ত্বকে অকাল চুলকানি হতে পারে। গরম জল ত্বক থেকে আর্দ্রতা শোষণ করে। এটি ত্বকের সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়িয়ে তুলতে পারে।


গরম জল চুলের উপর খারাপ প্রভাব ফেলে। এটি চুলের ময়েশ্চারাইজেশন হ্রাস করে যা চুল রুক্ষ এবং শুষ্ক হতে পারে। গরম  জলে চুল ধুয়ে স্ক্যাল্প শুকিয়ে নিন। এমন পরিস্থিতিতে খুশকি বাড়তে পারে। চুল শুকানো শুরু হয়।


হালকা গরম জল দিয়ে স্নান করলে চোখের আর্দ্রতাও কমে যায়। এর ফলে চোখের লালভাব, চুলকানি এবং ঘন ঘন জল হতে পারে।


গরম জল হাত এবং পায়ের নখকে প্রভাবিত করে। শক্তিশালী গরম জলের ব্যবহার নখ ভেঙে যাওয়া, সংক্রমণ এবং আশেপাশের ত্বকে সমস্যা হতে পারে।

No comments