Page Nav

HIDE

Grid Style

GRID_STYLE

Post/Page

Weather Location

Breaking News:

latest

সেন্টার ফর মনিটরিং ইন্ডিয়ান ইকোনমি (সিএমআইই) বলছে অক্টোবর মাসে কর্মসংস্থানের হার ৩৭.৮% কমে গেছে,বিস্তারিত জানতে পোস্টটি পড়ুন

২০২০ সালের অক্টোবর মাসে মারাত্মক করোনাভাইরাস কর্মসংস্থানের কারণে লকডাউন শিথিল করার পর ২০২০ সালের মে মাস থেকে প্রথমবারের মত পতন ঘটে। মানব সম্পদের চাহিদা সত্ত্বেও অক্টোবর মাসে দেশে কর্মসংস্থান ০.৫৫ মিলিয়ন কমে যায়। আগের মাসে মে মা…

 





২০২০ সালের অক্টোবর মাসে মারাত্মক করোনাভাইরাস কর্মসংস্থানের কারণে লকডাউন শিথিল করার পর ২০২০ সালের মে মাস থেকে প্রথমবারের মত পতন ঘটে। মানব সম্পদের চাহিদা সত্ত্বেও অক্টোবর মাসে দেশে কর্মসংস্থান ০.৫৫ মিলিয়ন কমে যায়। আগের মাসে মে মাসে ৩.১৬ কোটি কর্মসংস্থান, জুন মাসে ৬.৩২ কোটি, জুলাই মাসে ১.৫৩ কোটি এবং প্রবৃদ্ধি ২০২০ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত অব্যাহত রয়েছে। কর্মসংস্থানের চাহিদা বৃদ্ধির সাথে সাথে, এমনকি অল্প সংখ্যক বাজারবিস্মিত হয়। বেকারদের যারা কাজ করতে ইচ্ছুক ছিল অক্টোবরে ১.২ কোটি বৃদ্ধি পেয়েছে। 


১ নভেম্বর সমাপ্ত সপ্তাহের শ্রম বাজারের সাপ্তাহিক বিশ্লেষণে সিএমআইই বলেছে, "২০২০ সালের অক্টোবর মাস হচ্ছে মে মাসে পুনরুদ্ধার শুরু হওয়ার প্রথম মাস যা কর্মসংস্থানের পতন রেকর্ড করেছে। "কর্মসংস্থানের এই পতন ঘটে যখন কর্মসংস্থানের চাহিদা বাড়ছিল। অক্টোবর মাসে বেকারদের সংখ্যা ১২ মিলিয়ন বৃদ্ধি পেয়েছে," বলেছে সেন্টার ফর মনিটরিং ইন্ডিয়ান ইকোনমি। কর্মসংস্থানের প্রেক্ষাপটে উৎসবের মাস, খরিফ এবং ফসল কাটার মাস এবং নির্বাচনের সাক্ষী থাকা কয়েকটি রাজ্যেও কোন উন্নতি হয়নি। সিএমআইই-এর মতে, সেপ্টেম্বরে ৩৮ শতাংশের তুলনায় অক্টোবরে দেশে কর্মসংস্থানের হার ৩৭.৮ শতাংশে নেমে আসে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, "এটি একটি স্থবির শ্রমিক অংশগ্রহণের হার এবং বেকারত্বের হার বৃদ্ধির একটি ফলাফল।


তথ্য বলছে, ২০১৬-১৭ সাল থেকে কর্মসংস্থানের হার কমছে। এতে বলা হয়েছে, "যদি এই ধারা অব্যাহত থাকে, তাহলে ২০২০-২১ সালে কর্মসংস্থানের হার প্রায় এক শতাংশ কমে যাবে, যদিও কোন তালা বন্ধ ছিল না," এতে বলা হয়েছে যে বছরে এ পর্যন্ত যে ১৫৬ বেসিস পয়েন্ট পতন দেখা গেছে তার চেয়ে অনেক বড় পতন ঘটেছে, প্রাথমিকভাবে, পতনের প্রবণতার কারণে। "এই বিশাল ব্যবধান সেতু করার গতি মনে হচ্ছে ক্লান্ত হয়ে গেছে," ব্যাখ্যা করছে সিএমআইই। অক্টোবরের চতুর্থ সপ্তাহে গত তিন সপ্তাহের তুলনায় ভালো উন্নতি হয়েছে এবং শ্রমিকদের অংশগ্রহণের হার বুদ্ধিমত্তার সাথে বৃদ্ধি পেয়েছে। এবং ১ নভেম্বর শেষ হওয়ার সপ্তাহে তুলনামূলকভাবে স্বাস্থ্যকর কর্মসংস্থানের হার দেখা গেছে। 

No comments