Page Nav

HIDE

Grid Style

GRID_STYLE

Post/Page

Weather Location

Breaking News:

latest

চুলের যত্নের জন্য এই ৫ টি পরামর্শ অনুসরণ করুন

আজকের জীবনযাত্রা এবং দুর্বল খাওয়া আপনার স্বাস্থ্যের পাশাপাশি চুলের উপরও প্রভাব ফেলে। যদি আপনার চুলের যত্নের অভাব হয় তবে আপনার চুল ক্ষতিগ্রস্থ হতে শুরু করে। তাহলে আপনি কেন সময়মতো চুল কাটেন না বা চুলের যত্নের একটি ভাল রুটিন গ্রহ…





আজকের জীবনযাত্রা এবং দুর্বল খাওয়া আপনার স্বাস্থ্যের পাশাপাশি চুলের উপরও প্রভাব ফেলে। যদি আপনার চুলের যত্নের অভাব হয় তবে আপনার চুল ক্ষতিগ্রস্থ হতে শুরু করে। তাহলে আপনি কেন সময়মতো চুল কাটেন না বা চুলের যত্নের একটি ভাল রুটিন গ্রহণ করেন না তবে আপনি বিচ্ছেদ বা ক্ষতিগ্রস্ত চুল থেকে মুক্তি পেতে পারেন না। আপনার বিভাজক ক্ষতিগ্রস্থ চুলের দিকে নির্দেশ করে। আপনার চুলের নীচের চুলগুলি যখন দুটি ভাগে বিভক্ত হয়, তখন এটি বিভক্ত হওয়া এবং বিভক্ত হওয়া শেষ বলে বিবেচিত হয়, তাই আজ আমরা আপনাকে কীভাবে বিভক্ত প্রান্তগুলি থেকে মুক্তি পেতে পারি তা বলার জন্য।



১. গোলাপ জল এবং মধু  দিয়ে চুলের মাস্ক প্রয়োগ করুন মধু অনেক অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ এবং গোলাপ জলে পাওয়া নিরাময় বৈশিষ্ট্যগুলি আপনার ত্বকের পাশাপাশি আপনার চুলের জন্য খুব উপকারী। এছাড়াও, এটি আপনার বিভক্ত সমাপ্তির সমস্যাটি দূর করতে খুব কার্যকর বলে প্রমাণিত। এর জন্য ১ চা চামচ মধু এবং ১ চা চামচ জলে চার চা চামচ গোলাপজল মিশিয়ে আপনার চুলের শেষ প্রান্তে লাগান এবং ১ ঘন্টা রেখে দিন। তারপরে হালকা শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন।


২. ভেজা চুলে ব্লো ড্রায়ার ব্যবহার এড়িয়ে চলুন

আপনি যখন চুলের উপর একটি গরম সরঞ্জাম বা হেয়ার ড্রায়ার ব্যবহার করেন তখন এটি আপনার চুলে খুব ক্ষতি করে। এই জিনিসগুলির ব্যবহার আপনার চুলের সমস্ত আর্দ্রতা ভিজিয়ে রাখে যার ফলে এটি শুকিয়ে যায়। এই কারণেই আপনার চুলগুলি বিভাজন এবং খারাপ হওয়া শুরু করে। তাই সবসময় আপনার চুল প্রাকৃতিকভাবে শুকতে দিন।



৩. বাদাম ও অ্যাভোকাডো তেল প্রয়োগ করুন অ্যাভোকাডোতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ই, খনিজ এবং ফাইটোনিট্রিয়েন্ট থাকে যা আপনার চুলের ময়েশ্চারাইজারটি লক করে আপনার চুলগুলি ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করতে সহায়তা করে। এর জন্য আধা অ্যাভোকাডোতে ১ চা চামচ বাদাম তেল মিশিয়ে একটি মসৃণ পেস্ট তৈরি করুন। তারপরে এই হেয়ার মাস্কটি আপনার চুলে এবং মাথার ত্বকে কিছুক্ষণ লাগিয়ে রাখুন এবং তারপরে হালকা শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি আপনার ক্ষতিগ্রস্থ চুলের ক্ষতি করে।



৪. সঠিক ডায়েট খান

যদি আপনি চুলকে সুস্থ রাখতে চান তবে আপনার ডায়েটে ভিটামিন এবং প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার অন্তর্ভুক্ত করুন। এছাড়াও বায়োটিন আপনার চুলকে স্বাস্থ্যকর এবং সুন্দর করে তুলতে পারে। এগুলি ছাড়াও আপনাকে অবশ্যই আপনার ডায়েটে মাছ, শুকনো ফল, অ্যাভোকাডো, ওট এবং সয়া অন্তর্ভুক্ত করতে হবে।



৫. চুলকে ময়েশ্চারাইজ করা জরুরী আপনার যদি নিয়মিত বিভক্ত হওয়া নিয়ে সমস্যা হয় তবে আপনার ময়েশ্চারাইজিং শ্যাম্পু ব্যবহার করা উচিৎ। আপনি যখন আরও চুল ধোবেন তখন এটি আপনার চুলের প্রাকৃতিক তেলকে হ্রাস করে। এমন পরিস্থিতিতে আপনার চুলের ময়েশ্চারাইজার রাখতে শ্যাম্পু ব্যবহার করুন যা নারকেল তেল, শেয়া মাখনের মতো পুষ্টিতে পরিপূর্ণ।



এগুলি ছাড়াও আপনার ঘন ঘন চুলের চিকিৎসা করা এড়ানো উচিৎ। যদি আপনি বেশিরভাগ সময় চিকিৎসার জন্য কোনও সেলুন বা অভিনব হেয়ার স্পা ব্যয় করেন তবে এটি আপনার চুলের জন্য খুব ক্ষতিকারক হতে পারে কারণ এই চিকিৎসাগুলি এমন চুলায় রাসায়নিকগুলি পূর্ণ যা আপনার চুল আরও খারাপ করে।

No comments