Page Nav

HIDE

Grid Style

GRID_STYLE

Post/Page

Weather Location

Breaking News:

latest

চলতি লকডাউনে ক্রমশ বৃদ্ধি পেল ডালের দাম

খাদ্য সামগ্রীর মূল্যস্ফীতি সরকারের জন্য উদ্বেগের বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। শাক-সবজি সহ অনেক কিছুর পাশাপাশি ডালের দামও দ্রুত বাড়তে শুরু করেছে। লকডাউনের পর থেকে ডালের দাম ক্রমাগত বাড়ছে। গত বছরের এই সময়ের তুলনায় ডালের দাম ২০ থেকে …







খাদ্য সামগ্রীর মূল্যস্ফীতি সরকারের জন্য উদ্বেগের বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। শাক-সবজি সহ অনেক কিছুর পাশাপাশি ডালের দামও দ্রুত বাড়তে শুরু করেছে। লকডাউনের পর থেকে ডালের দাম ক্রমাগত বাড়ছে। গত বছরের এই সময়ের তুলনায় ডালের দাম ২০ থেকে ৩০ শতাংশ বেড়েছে।



দিল্লি-এনসিআর বাজারে ডালের দাম 



দিল্লি-এনসিআর মার্কেটে খুচরা ক্রেতারা ডালের কম উৎপাদনকে উদ্ধৃত করে দাম বাড়িয়ে দিচ্ছেন। প্রতি কেজি ডালের দাম কিছু সময়ের জন্য ১৫ থেকে ২০ টাকা বেড়েছে। গত বছর পর্যন্ত  ডালের দাম ছিল প্রতি কেজি ৭০-৮০ টাকা হলেও এবার তা ১০০ টাকারও বেশি উচ্চতায় পৌঁছেছে। আরহর ডাল বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ১০০ টাকা।



দাম কমার কোনও সম্ভাবনা নেই 


বাজার অপারেটররা জানান, জুলাই পর্যন্ত  ডালের দাম কুইন্টাল প্রতি ৫০০ টাকা, আরহরে ৯০০ টাকা এবং মুগে প্রতি কুইন্টাল ৮০০ টাকা বেড়েছে। করোনার কারণে ডালের ফলন হ্রাস পেয়েছে। নতুন স্টক হ্রাস ও পুরাতন শেষ হওয়ায় ডালের দাম বেড়েছে। বেশি দামের দামের কারণে খুচরা দামগুলি ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। তাই ডাল ব্যয়বহুল হচ্ছে।



সম্প্রতি আলু ও পেঁয়াজ সহ সবজির দাম বেড়েছে। এর পরে ডালের দাম বেড়েছে জনগণকে। যদিও সরকার বলছে যে তারা দামের দিকে নজর রাখছেন, এই মুহুর্তে ডালের দামে তেমন কোনও হ্রাস পাওয়া যায়নি। খাদ্য সামগ্রীর দাম বৃদ্ধির কারণে দেশে খুচরা মুদ্রাস্ফীতি ছয় শতাংশের উপরে রয়েছে। বিশ্লেষকরা বলেছেন যে খাদ্য মুদ্রাস্ফীতি উচ্চমাত্রায় থাকবে কারণ করোনা ভাইরাসের কারণে সরবরাহ চেইন ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এর প্রভাব এখনও থাকবে।

No comments