Page Nav

HIDE

Grid Style

GRID_STYLE

Post/Page

Weather Location

Breaking News:

latest

সাহারার ধূলিঝড় টিকিয়ে রেখেছে আমাজনকে!

একসময় সাহারার বিস্তীর্ণ অঞ্চল জুড়ে ছিল লোনা জলের হ্রদ। নীলনদের পশ্চিমে প্রায় ৪২ হাজার বর্গমাইল জুড়ে ছিল এই লেকের ব্যাপ্তি। তথ্য-উপাও অনুযায়ী এই হ্রদের সৃষ্টি হয়েছিল প্রায় আড়াই লাখ বছর আগে। যা প্রায় সাত হাজার বছর …


       একসময় সাহারার বিস্তীর্ণ অঞ্চল জুড়ে ছিল লোনা জলের হ্রদ। নীলনদের পশ্চিমে প্রায় ৪২ হাজার বর্গমাইল জুড়ে ছিল এই লেকের ব্যাপ্তি। তথ্য-উপাও অনুযায়ী এই হ্রদের সৃষ্টি হয়েছিল প্রায় আড়াই লাখ বছর আগে। যা প্রায় সাত হাজার বছর আগে সাহারার বুক থেকে বিদায় নিয়েছে। এখনো এই অঞ্চলের বালিতে বিভিন্ন প্রজাতির মাছের ফসিল পাওয়া যায়। কৃত্রিম উপগ্রহ থেকে স্পষ্টভাবে দেখা যায় এই স্রোতের অবশিষ্ট শুভ্র লবণের স্তুপ।

         একসময় যা ছিল জীবনে পরিপূর্ণ তা এখন বিরাণভূমি ছাড়া আর কিছুই না। মৃত লেকের উপর দিয়ে বয়ে চলা বাতাস খনিজ লবণসমৃদ্ধ সাহারান ধূলিকণা শূন্যে ভাসায়। এই ধুলোবালি প্রায় ৩ হাজার কিলোমিটার পথ অতিক্রম করে আটলান্টিক মহাসাগরের ওপর দিয়ে মধ্য এবং দক্ষিণ আমেরিকায় পাড়ি জমায়। যেখানে পৃথিবীর সর্ববৃহৎ রেইনফরেস্টের বসতি।



























    আমাজন রেইনফরেস্ট। এখানে প্রায় প্রতিদিনই বৃষ্টিপাত হয়। বেড়ে ওঠার জন্য বৃক্ষের জল ছাড়াও অনেক উপাদানের প্রয়োজন হয়‌। খনিজ সমৃদ্ধ সাহারান ধূলিকণা বৃষ্টির জলের ফোঁটায় ফোঁটায় এই জঙ্গলে পতিত হয়। এই জঙ্গলের মাটিকে উর্বরতা দান করে। ধূলিকণা গুলি এই বিশাল জঙ্গলের খাদ্যের যোগান দিয়ে যাচ্ছে, এবং পৃথিবীর সবচেয়ে বিচিত্র বাস্তুসংস্থান টিকিয়ে রাখতে প্রতিনিয়ত সাহায্য করছে।

       বিজ্ঞানীদের হিসাব অনুযায়ী প্রতি বছর প্রায় ২ কোটি ৭০ লাখ টন ধুলোবালি আফ্রিকা থেকে আমাজনে পাড়ি জমায়। এ যেন এক মহাদেশের পক্ষ থেকে অন্য মহাদেশের জন্য অনন্য উপহার। পুরো পৃথিবীর বাস্তুসংস্থান পরস্পর নির্ভরশীল এবং ঘনিষ্ঠ ভাবে সম্পর্কযুক্ত। পৃথিবীর একটি অঞ্চলের পরিবর্তন প্রভাব ফেলতে পারে বিশ্বজুড়ে। বদলে দিতে পারে মানুষ এবং সমস্ত জীব জগতের সার্বিক জীবনব্যবস্থাকে।

    শিপ্রা হালদার

No comments