মোবাইল ভাঙা নিয়ে ইভটিজিং , অপমানে আত্মঘাতী ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী - Vice Daily

Page Nav

HIDE

Grid Style

GRID_STYLE

Post/Page

Weather Location

Breaking News:

latest

মোবাইল ভাঙা নিয়ে ইভটিজিং , অপমানে আত্মঘাতী ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী

নিজস্ব প্রতিনিধি,২ জুনঃ- ইভটিজিংয়ের শিকার। অপমানে আত্মঘাতী ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী। গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী বছর দশের কিশোরীর নাম, সুশ্রিতা মুখার্জী। শিলিগুড়ি গার্লস হাই স্কুলেই ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী ছিল সে।বাড়ি শিলিগুড়ি শহরতলির ডাবগ…



নিজস্ব প্রতিনিধি,২ জুনঃ- ইভটিজিংয়ের শিকার। অপমানে আত্মঘাতী ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী। গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী বছর দশের কিশোরীর নাম, সুশ্রিতা মুখার্জী। শিলিগুড়ি গার্লস হাই স্কুলেই ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী ছিল সে। বাড়ি শিলিগুড়ি শহরতলির ডাবগ্রামের মধ্য শান্তিনগরে। পরিবারের অভিযোগ গত ২৫ মে বিকেল বেলা প্রাইভেট টিউটরের কাছে পড়াশুনো করে বাড়ির উদ্দেশ্যে শান্তিনগর বৌবাজার ব্রিজের কাছে পৌঁছলে নানু কর নামক একটি ছেলে তার সাইকেল টেনে ধরে তাকে আটকে রাখে , তার মোবাইল ফোন দিয়ে সুশ্রিতাকে বলে বাড়িতে ফোন করে জানিয়ে দিতে যে সে তাকে বিয়ে করেছে সে আর বাড়ি ফিরবেনা । বছর ১৬ থেকে ১৭ র নানুর কথায় বিরক্তি প্রকাশ করে ও শুরু হয় দুজনের মধ্যে বাকবিতণ্ডা , সুশ্রিতা নানুর মোবাইল কেড়ে ভেঙে দিয়ে সাইকেল নিয়ে বাড়ি চলে যায় । পরিবারের লোক নানুকে বোঝাবার চেষ্টা করলে তা সম্পূর্ণ বিফলে যায় । ঘটনার কিছুক্ষন পর নানু তার মাদকে আসক্ত বন্ধুদের নিয়ে চড়াও হয় সুশ্রিতার বাড়ি , মোবাইল ভাঙবার কারণে অকারণ উত্তেজনার পরিবেশ সৃষ্টি করে পাড়ায় । পরিস্থিতি সামলাতে সুশ্রিতার পরিবার নানুর মোবাইল ঠিক করে দেবার আশ্বাস দেয় , সেই কথা মত কাজও করে , দু দিনের মাথায় মোবাইল ঠিক করে নানুর হাতে তা তুলে দিতে গিয়ে সুশ্রিতার বাবা সঞ্জয় মুখার্জীকে উল্টে অপমান করে নানুর দোকানের মালিক এবং নানু , তাদের দাবি নতুন মোবাইলের । তারপরও ইভটিজিং থেমে থাকেনি নানুর , কখনো বাড়ির সামনে গিয়ে আবার কখনো রাস্তায় । পরিবারের দাবি ঘটনার পর থেকেই মানসিক অবসাদে ভুগছিল মেয়ে , কখনো বাবাকে অপমান , আবার কখনো তাকে নিয়ে অশ্লীল বার্তালাপ । মেয়ের মুখের দিকে তাকিয়ে নতুন মোবাইল কিনে দিতে রাজি হন সঞ্জয় বাবু । শনিবার সুশ্রিতার মা নতুন মোবাইল কেনার জন্য ব্যাংক থেকে টাকা উঠতে গেলে বাড়িতে কেউ না থাকবার সুযোগ নিয়ে গলায় ওড়না লাগিয়ে আত্মঘাতী হয় বছর দশকের ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী সুশ্রিতা মুখার্জী । চারটে নাগাদ তার মা বাড়ি ফিরলে মেয়ের ঝুলন্ত দেহ দেখতে পায় ঘরে , তড়িঘড়ি হাসপাতলে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন , আজ ময়নাতদন্তের জন্য মৃতদেহ উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হয় । পরিবারের দাবি মানসিক অবসাদের কারণেই তাদের মেয়ে আত্মঘাতী হয়েছে , এই ঘটনার পেছনে রয়েছে নানু কর ও তার বন্ধুরা । তাদের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের হয় আশিঘর আউট পোস্টে । গোটা ঘটনার তদন্তে পুলিশ অপরদিকে এই ঘটনার পরেই পলাতক নানু , তার পরিবার ও বন্ধুবান্ধবরা। এই ঘটনায় বাকরুদ্ধ শিলিগুড়ি। অভিযুক্তদের কঠিন শাস্তির দাবি উঠছে বিভিন্ন মহল থেকে।


from বাংলা খবর http://bit.ly/2HQEZF8

No comments