কেন অবশ হয়ে যায় হাত-পা - Vice Daily

Page Nav

HIDE

Grid Style

GRID_STYLE

Post/Page

Weather Location

Breaking News:

latest

কেন অবশ হয়ে যায় হাত-পা

নিজস্ব প্রতিনিধি,২৭জুন: একটানা দীর্ঘক্ষণ হাত, পা বা শরীরের কোনও অংশের উপর চাপ পড়লে সেই অংশ কিছুক্ষণের জন্য অবশ হয়ে যেতে পারে। বিশেষজ্ঞদের মতে, স্নায়ুগুচ্ছে যদি কোনও কারণে চাপ পড়ে সংকুচিত বা ক্ষতিগ্রস্থ হয় তাহলে শরীরের সেই অংশে …





নিজস্ব প্রতিনিধি,২৭জুন: একটানা দীর্ঘক্ষণ হাত, পা বা শরীরের কোনও অংশের উপর চাপ পড়লে সেই অংশ কিছুক্ষণের জন্য অবশ হয়ে যেতে পারে। বিশেষজ্ঞদের মতে, স্নায়ুগুচ্ছে যদি কোনও কারণে চাপ পড়ে সংকুচিত বা ক্ষতিগ্রস্থ হয় তাহলে শরীরের সেই অংশে কোনো অনুভূতি কাজ করে না বা অবশ লাগে।চিকিৎসকদের মতে, শারীরিক দুর্বলতা, কোনো রকম সংক্রমণের প্রভাবেও এমনটা হতে পারে। কখনো কখনো কোনো গুরুতর স্বাস্থ্য সমস্যার কারণেও এমনটা হতে পারে। জেনে নিন কেন হয় এমন।কখনো কখনো দীর্ঘক্ষণ হাতের উপর ভর দিয়ে শুয়ে থাকলে বা পায়ের উপর পা তুলে রাখার ফলে অবশ হয়ে যাওয়া স্বাভাবিক ঘটনা। তবে এমনটা বার বার হতে থাকলে এবং শরীরের অন্যান্য অংশেও হলে সতর্ক হওয়া জরুরি। মাল্টিপল স্ক্লেরোসিসের কারণে এমনটা হতে পারে। এই সমস্যায় স্নায়ুতন্ত্রের মায়োলিন সিথ ক্ষতিগ্রস্থ হতে পারে।যেসব মানুষ ডায়াবেটিসে আক্রান্ত তাদের অনেকের মধ্যেই পেরিফেরাল স্নায়ু রোগের প্রকোপ লক্ষ্য করা যায়। পেরিফেরাল স্নায়ুর সমস্যায় পায়ের পাতা ঘন ঘন অবশ হয়ে যেতে পারে। পরবর্তীকালে এই অবশ ভাব শরীরের উপরের অংশেও ছড়িয়ে পড়ে।স্নায়ু ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার ফলে হাত, পা ও শরীরের অন্যান্য অংশে তীব্র ব্যথা এবং জ্বালা হতে পারে। স্নায়ুরোগ বিশেষজ্ঞদের মতে, নিউরালজিয়ার কারণে এমনটা হতে পারে। শরীরের যে কোনো অংশেই এই সমস্যা হতে পারে। বিশেষ করে কোনো সংক্রমণের কারণে বা বয়সের কারণে হতে পারে এই রোগ।মস্তিষ্কে যদি রক্ত সরবরাহ পর্যাপ্ত না হয় সে ক্ষেত্রে স্ট্রোক হয়। বিশেষ করে রক্তনালী কোনো কারণে বাধাপ্রাপ্ত হলে এমন হয়। স্ট্রোকের প্রথম লক্ষণ হলো বাঁ হাত অবশ হয়ে যাওয়া যা ক্রমশ হাতের তালু পর্যন্ত ছড়িয়ে পরে।সিস্টেমিক ডিজিজে হরমোনের ভারসাম্য নষ্ট হলে, এর জন্য ক্যান্সার সৃষ্টিকারী টিউমার বা স্নায়ুর নানা সমস্যা হতে পারে। প্রাথমিক ভাবে সিস্টেমিক ডিজিজে হাত, পা-সহ শরীরের একাধিক অংশ অবশ হয়ে যেতে পারে।


from aaj now | আজ নাউ | https://ift.tt/2X4t1MH

No comments