কিভাবে বসের মন জয় করতে হয়, জেনে নিন! - Vice Daily

Page Nav

HIDE

Grid Style

GRID_STYLE

Post/Page

Weather Location

Breaking News:

latest

কিভাবে বসের মন জয় করতে হয়, জেনে নিন!

আপনি অফিসে সবকিছুই ঠিকঠাক করছেন, কাজে দেরীতে আসছেন না, অসুস্থতার জন্য খুবই কম ছুটি নিচ্ছেন, অফিসের সকল সময়সীমা মেনে চলছেন…...তারপরও আপনার পদোন্নতি হচ্ছে না? আপনি সব কাজ ঠিকমতই করছেন কিন্তু তারপরেও আপনাকে কেন সঠিকভাবে মূল্যায়ন কর…



আপনি অফিসে সবকিছুই ঠিকঠাক করছেন, কাজে দেরীতে আসছেন না, অসুস্থতার জন্য খুবই কম ছুটি নিচ্ছেন, অফিসের সকল সময়সীমা মেনে চলছেন…...তারপরও আপনার পদোন্নতি হচ্ছে না? আপনি সব কাজ ঠিকমতই করছেন কিন্তু তারপরেও আপনাকে কেন সঠিকভাবে মূল্যায়ন করা হচ্ছে না? কিন্তু কেন? এর উত্তর খুবই সহজ। আপনি আপনার বসের চাহিদা সঠিকভাবে পূরন করতে পারছেন না।

আপনার বসের মূল্যায়ন সর্বপ্রথম আপনার মূল্য দেয়া উচিত। বস কে বসে রাখতে কে না চায়। চামচামি নয়। কাজ দিয়েই বসের মন জয় করা সম্ভব। বস খুশি থাকবেন। এটা শুনতে অনেক কঠিন শোনালেও কিছু টেকনিক অবলম্বন করে করলেই হয়। তো ইনক্রিমেন্ট,  প্রমোশন নিয়ে চিন্তা নেই।  বস খুশি থাকবেন।

প্রথম পদক্ষেপ:

চাকুরী পাবার জন্য যে সব দক্ষতা ও যোগ্যতা থাকা উচিত সেগুলো অর্জনের পাশাপাশি আপনার আরো কিছু জানা উচিত। কোম্পনীর শ্রমের জায়গা, এর প্রতিযোগী কারা কারা, কোম্পানীর সর্বশেষ উন্নয়নমূলক কাজ এবং এতে নিওয়া বিভিন্ন ধরনের চ্যালেন্জসমূহ ইত্যাদি আপনার জানতেই হবে। পেশাভিত্তিক উন্নয়ন অবশ্যই প্রয়োজন কিন্তু এখানেই শেষ কেন? যদি আপনি সত্যিই আপনার বসের মন জয় করতে চান তবে আপনার কোম্পানীর সকল তথ্য আপনার নখদর্পনে থাকবে হবে। মনেকরুন আপনি আইটি ডেভেলপার। আপনার নির্দিষ্ট কাজের পাশাপাশি আপনাকে চিন্তা করতে হবে যে কিভাবে এই ক্ষেত্রটি ইন্ড্রাস্ট্রিতে প্রয়োগ করবেন। আপনার ঞ্জানকে বাস্তব ক্ষেত্রে প্রয়োগের পন্থা আপনাকে এনে দেবে বাড়তি যোগ্যতা। 

দ্বিতীয় পদক্ষেপ:

বসের প্রশ্ন করার পর উত্তর দেবার চেয়ে এটা সবচেয়ে ভাল হবে যে তার মনস্তত্ব বুঝে প্রশ্ন করার আগেই সেটা তাকে অবহিত করা। তবে এটা খুবই ভাল যে, বসের যেকোন প্রশ্নের উত্তর কো ফাইল বা পেপার পত্র না ঘেটে ঘটনাস্থলেই দেয়া । কিন্তু আপনি যদি সত্যিই বসের মনে জায়গা করে নিতে চান তবে তার কাজের উপর ভিত্তি করে তরি মন বোঝার চেষ্টা করুন এবং তা থেকে অনুমান করে তাকে নিয়মিত সকল তথ্য দিতে খাকুন। এতে করে আপেনি ওনার মূল্যবান সময় এবং শক্তি দুটোই বাঁচাবেন। এবং এতে তিনি মনে করবেন যে আপনি কাজের প্রতি সত্যিই উৎসাহী।

তৃতীয় পদক্ষেপ:

যদি কোন ভুল করে থাকেন তবে তা লুকানোর পরিবর্তে তা থেকে শিক্ষা নিন। অনেক লোকজন ভুল করলে তা স্বীকার করতে চান না বা করেন না। এটা আপনার বসকে দেখিয়ে দেন যে আপনি আপনার ভুল স্বীকার করতে পিছুপা হন না। এবং তাকে এটাও বোঝান যে এথেকে শিক্ষা নিয়ে আপনি আরে সমাধানের পথ ইতিমধ্যে তৈরী করে ফেলেছেন। এসব বিষয় আপনাকে বসে কাছে জবাবদিহি, সৃজনশীল ও কর্মঠ হিসেবে গড়ে তুলবে।

চতুর্থ পদক্ষেপ:

বসকে কোন ট্রেনিং এর ব্যাপারে সরাসরি না বলে নিজে নিজে সেই ট্রেনিং করুন। নিজে নিজের দক্ষতা বাড়ানোর বিষয়ে উদ্যোগী হোন। এর জন্য যে আপনাকে কারি কারি টাকা পয়সা খরচ করতে হবে তা নয়। আজকাল অনলাইনে ফ্রিতে অনেক কোর্স দেয়া থাকে। এসব থেকে অনায়াসে যে কেউ নিচের দক্ষতা একটু এগিয়ে নিতে পারেন। যখন সবাই বসকে ট্রেনিং এর জন্য অনুরোধ করতে থাকবেন তখন আপনি যদি বলেন যে, আপনি আতিমধ্যে এটি করে ফেলেছেন তবে এটি আপনার জন্য ইতিবাচক হবে। কোম্পানীর খরচ কমানোর পাশাপাশি আপনি আপনার বসের মনও জয় করতে সচেষ্ট হবেন।

পঞ্চম পদক্ষেপ:

বসে মন জয় করবার জন্য কোন আদেশ পাবার আগেই তা করে ফেলুন। যদি আপনি কোন সমস্যা পান তবে আগেই এর সমাধান করে ফেলুন। যদি কোন কাজ করবার প্রয়োন পরে তেবে তা আগেই করে ফেলুন। এসব কাজ আপনাকে অন্যদের থেকে আলাদা করে তুলবে। বসের প্রসংসা সর্বাধিক গ্রহনযোগ্য। তারা আপনাকে তখনই ভাল বলবেন যখন দেখবেন যে আপনি দীর্ঘ মেয়াদে কোম্পানীর জন্য ভাল হবেন।

ষষ্ঠ পদক্ষেপ:

কোম্পানীর প্রতিটি সদস্যর সাথে ভাল সম্পর্ক র্খতে হবে। এর সাথে সাথে কোম্পানীর স্বার্থে অনেক সময় অন্য কোম্পানীর সাথে ভাল সম্পর্ক রাখতে হয়। এর ফলে আপনি বসের সাথে যাবতীয় সমস্যা নিয়ে কথা বলতে পারবেন। অনেক সময় সকল তথ্য বস পর্যন্ত পৌছায় না এসব কথা বলে আপনি একজর প্রতিনিধির কাজ করবেন বলে বসের মন যোগাতে পারবেন।

সপ্তম পদক্ষেপ:

অনেক সময় কোম্পানীতে বিভিন্ন ধরনের সংকটাপন্ন অবস্থার সৃষ্টি হয়। অনেকে এর মধ্যে থেকে সবাইকে উস্কে দেয়। এর ফলে লোকজনের মাঝে দ্বন্দ্ব লেগে যায়। এসব পরিস্থিতে আপনাকে ধীর স্থির হয়ে এসবের মোকাবেলা করতে হবে। এই যোগ্যতার জন্য আপনি হয়ে উঠতে পারেন বসের কাছে প্রিয় পাত্র।

এসকল গুনাবলী যাদের মধ্যে থাকে তারা অধিকাংশ সময়ই মূল্য পেয়ে থাকেন। ব্যবসা মূলত লাভের জন্যই মানুষ করে থাকে। আপনার বস যদি আপনার মাঝে সেই গুণগুলো খুজে পান যা তারা চান তবে আপনি আপনার মূল্যায়ন পাবেনই।


from Daily Bangla http://bit.ly/2Vtrej6

No comments