নদিয়ায় পিটিয়ে খুন বিজেপি কর্মীকে অভিযোগের তির তৃণমূলের দিকে। - Vice Daily

Page Nav

HIDE

Grid Style

GRID_STYLE

Post/Page

Weather Location

Breaking News:

latest

নদিয়ায় পিটিয়ে খুন বিজেপি কর্মীকে অভিযোগের তির তৃণমূলের দিকে।

নিজস্ব প্রতিবেদন,নদিয়া: ভোট পরবর্তী হিংসা অব্যাহত নদিয়ায়। পিটিয়ে খুন করা হলো বিজেপি কর্মী কে উনিত বিজেপি কর্মীর নাম হারাধন মৃধা(৫০) বাড়ি নদীয়ার চাপড়া ব্লকের ভীমপুর থানার এলাঙ্গী এলাকায়। ঘটনার সূত্রপাত গত বুধবার রাত সাতটা ন…







নিজস্ব প্রতিবেদন,নদিয়া: ভোট পরবর্তী হিংসা অব্যাহত নদিয়ায়। পিটিয়ে খুন করা হলো বিজেপি কর্মী কে উনিত বিজেপি কর্মীর নাম হারাধন মৃধা(৫০) বাড়ি নদীয়ার চাপড়া ব্লকের ভীমপুর থানার এলাঙ্গী এলাকায়। ঘটনার সূত্রপাত গত বুধবার রাত সাতটা নাগাদ কাজ থেকে ফিরে বাড়ির পাশেই মাঠে বিশ্রাম নিচ্ছিলেন হারাধন মৃধা। সেই সময় বেশ কয়েক জন দুষ্কৃতী চড়াও হয় সেখানে হারাধন মৃধা কে মারতে শুরু করে বেশ কয়েকজন। হরেকৃষ্ণ মৃধার চিৎকার শুনে ছুটে আসে তার ছেলে স্মরজিৎ মৃধা। বাবাকে বাঁচাতে এসে তাকেও মারধর করে দুষ্কৃতীরা। এরপর মারতে নিয়ে যায় অন্য একটি জায়গায়। সেখানেও বেঁধে বেদম প্রহার করে স্মরজিত মৃধাকে। পাশেই চলছিল একটি ধর্মীয় অনুষ্ঠান মাইকের আওয়াজে হারাধন মৃধার কাতর আর্তি কেউ শুনতে পায়নি। এরপর বাড়ির লোক ছুটে আসে এসে দেখতে পায় লাঠি বাঁশ দিয়ে বেধড়ক ভাবে পেটানো হচ্ছে তাকে সেই সময় ধর্মীয় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিল ভীমপুর থানার এক এস আই এবং বেশ কিছু সিভিক ভলেন্টিয়ার। সেখান থেকে হারাধন মৃধাকে  উদ্ধার করে স্থানীয় গ্রামীণ হাসপাতাল ও সেখান থেকে শক্তিনগর জেলা হাসপাতালে নিয়ে যায়। শক্তিনগর জেলা হাসপাতালে 


চিকিৎসা চলাকালীন মৃত্যু হয় হারাধন মৃধার। একদিকে যেমন চিকিৎসার গাফিলতিতে মৃত্যু অন্যদিকে প্রায় ৯ জনের বিরুদ্ধে শুক্রবার ভীমপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে মৃত ব্যক্তির ছেলে। গোটা ঘটনায় অভিযোগের তীর রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের দিকে। অন্যদিকে বিজেপি কর্মী খুনের দোষীদের গ্রেপ্তারের দাবিতে শুক্রবার সকালে ভীমপুর থানার সামনে বিক্ষোভ দেখায় জেলা বিজেপি। এ বিষয়ে নদীয়া জেলা বিজেপির উত্তরের সভাপতি জগন্নাথ সরকার বলেন, গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে এলাকায় সন্ত্রাস করা সত্ত্বেও বিজেপি ভালো ফল করেছিল আর তখন থেকে হারাধন মৃধা তৃণমূলের চক্ষুশূল হয়েছিল। সদ্য লোকসভা নির্বাচনেও হারাধন মৃধা দলের হয়ে ভালো কাজ করেছিল তাই তাকে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা পিটিয়ে খুন করল। আমরা পুলিশকে বলেছি অবিলম্বে দোষীরা যদি গ্রেপ্তার না হয় আমরা আরও বৃহত্তর আন্দোলনে শামিল হবো। তবে ঘটনার দায় অস্বীকার করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। এ বিষয়ে চাপরা ব্লক এর তৃণমূল ব্লক সভাপতি জেবের শেখ জানান, বিজেপির আনা অভিযোগ একেবারেই মিথ্যা এর সাথে তৃণমূল কোন মতেই জড়িত নয়। নদিয়ায় শান্তিতে ভোট পর্ব মিটে গেছে তারপরে বাজার গরম করতেই তৃণমূলের ঘাড়ে দোষ চাপাচ্ছে বিজেপি। এর সাথে রাজনৈতিক কোনো সম্পর্ক নেই বলেই জানান তৃণমূল ব্লক সভাপতি।



from বাংলা খবর http://bit.ly/2Jttnd5

No comments