চন্দ্রকোনা ২ নং ব্লক বাংলার আবাস যোজনায় রাজ্যের সেরার দৌড়ে - Vice Daily

Page Nav

HIDE

Grid Style

GRID_STYLE

Post/Page

Weather Location

Breaking News:

latest

চন্দ্রকোনা ২ নং ব্লক বাংলার আবাস যোজনায় রাজ্যের সেরার দৌড়ে

বাংলার আবাস যোজনায় টানা তৃতীয়বার  রাজ্য সরকারের সেরা চন্দ্রকোনা ২ নং ব্লক।
বাংলার আবাস যোজনা প্রকল্পে লক্ষমাত্রা পুরনে এবার জেলা ছাড়িয়ে রাজ্য সেরার দৌড়ে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার চন্দ্রকোনা ২ নং ব্লক। আগেই জেলার সেরা হিসাবে চন্দ্…

  বাংলার আবাস যোজনায় টানা তৃতীয়বার  রাজ্য সরকারের সেরা চন্দ্রকোনা ২ নং ব্লক।
বাংলার আবাস যোজনা প্রকল্পে লক্ষমাত্রা পুরনে এবার জেলা ছাড়িয়ে রাজ্য সেরার দৌড়ে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার চন্দ্রকোনা ২ নং ব্লক। আগেই জেলার সেরা হিসাবে চন্দ্রকোনা ২ নং ব্লক প্রশাসনকে পুরস্কৃত করেছেন জেলাশাসক। নির্ধারিত সময়ের আগেই বাংলার আবাস যোজনা প্রকল্পে উপযুক্ত উপভোক্তাদের বাড়ি তৈরীর লক্ষমাত্রা পুরন করায় সেবার নজির সৃষ্টি করেছিলো চন্দ্রকোনা ২ ব্লক। ব্লক প্রশাসন সূত্রে খবর, গত ২০১৭-১৮ বর্ষে প্রকল্পে মোট ৩৩১ টি বাড়ি তৈরীর লক্ষমাত্রা দেওয়া হয় এই ব্লককে, কিন্তু নির্ধারিত সময়ের আগেই অর্থাৎ ২০১৭  ডিসেম্বরেই সেই লক্ষমাত্রা পুরনে সক্ষম হয় চন্দ্রকোনা দু নম্বর ব্লক। সেই সময় জেলার মোট ২৬ টি ব্লকের মধ্যে চন্দ্রকোনা দু নম্বর ব্লক বাংলার আবাস যোজনা প্রকল্পে প্রথম স্থান অর্জন করে। এবারও সেই ধারা অব্যাহত রেখে জেলা ছাড়িয়ে রাজ্যে প্রথম স্থানাধীকারির দৌড়ে পশ্চিম মেদিনীপুরের এই ব্লক, প্রশাসন সূত্রে এমনই খবর। এবার ২০১৮-১৯ বর্ষে বাংলার আবাস যোজনা প্রকল্পে চন্দ্রকোনা দু নম্বর ব্লক মোট ৫০৩ টি বাড়ি তৈরীর লক্ষমাত্রা পাই এবং সেই লক্ষমাত্রা ২০১৮ র ডিসেম্বরেই পুরন করে ফেলা হয় বলে জানান এই ব্লকের বিডিও শাশ্বত প্রকাশ লাহিড়ী। তিনি  বলেন, “নির্ধারিত সময়ের আগেই অর্থাৎ ২০১৯ সালের মার্চের আগেই ইতিমধ্যে ৫০৩ টি বাড়ি তৈরীর কাজ সম্পন্ন হয়েছে। আমাদের ব্লককে আরও অতিরিক্ত ৫০ টি বাড়ি তৈরীর জন্য উপভোক্তাদের দেওয়া হয়েছে, সেগুলিও চলতি বছরের মার্চ মাসেই সম্পন্ন হয়ে যাবে। জেলা ছাড়াও রাজ্যে আমাদের ব্লকই একমাত্র যারা বাংলার আবাস যোজনা প্রকল্পের সমস্ত বাড়িই নির্ধারিত সময়ের আগেই সম্পন্ন করতে পেরেছে।” সরকারি অর্থে বাড়ি পেয়ে খুশি উপভোক্তারাও। সঠিক সময়ে স্বচ্ছতার সাথে যাতে প্রত্যেকটি উপভোক্তার বাড়ি নির্মান সম্পন্ন হয় তা নিজে চেষ্টা করেছেন ব্লকের বিডিও শাশ্বত প্রকাশ লাহিড়ী, এমনই মত উপভোক্তাদের। ব্লকের সাফল্যে খুশি পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি হীরালাল ঘোষ। তিনি বলেন, প্রথমে ৩৩১ টি পরের বার ৫০৩ টি। আবার অতিরিক্ত হিসাবে আরও ৫০ টি দেওয়া হয়েছে তাও মার্চেই হয়ে যাবে। এটা নিঃসন্দেহে জেলা তথা গোটা রাজ্যে নজির। এটা ব্লক প্রশাসনের পাশাপাশি পঞ্চায়েত স্তরের কর্মীদেরও অক্লান্ত পরিশ্রমের জন্যই সম্ভব হয়েছে। আশা করি এই সাফল্যে খুশি ব্লকের সাধারন মানুষও। আমাদের মুখ্যমন্ত্রীর উন্নয়নের এও এক জলজ্যান্ত উদাহরন। ঘোষনাটা এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা।

No comments