Top Ad 728x90

Friday, 30 November 2018

, ,

ব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্ত ছেলেকে বাচানোর জন্য মায়ের করুণ আবেদন মমতা ময়ী মুখ্যমন্ত্রীর কাছে


ভাইস ডেইলি,শিব শঙ্কর চ্যাটার্জি, দক্ষিনদিনাজপুর,৩০ নভেম্বর:-  ব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্ত ছেলেকে বাচানোর জন্য মায়ের করুণ আবেদন মমতা ময়ী মুখ্য মন্ত্রীর কাছে আবেদন ছেলেকে বাচানোর জন্য। "মুখ্যমন্ত্রী আপনি আমার ছেলের জীবনটা বাঁচান।" কাঁতর আবেদন ব্লাড ক্যানসারে আক্রান্ত ছোট অবীরের মা বাবার। ছেলের চিকিৎসা করাতে গিয়ে শেষ সম্বল ভিটে মাটি পর্যন্ত বিক্রি করে দিয়েছেন গনেশ রায়।এলাকাবাসী ও পরিচিতদের কাছ থেকে ঋণ করে ফেলেছেন অনেক। আর পারছেন না ছেলের চিকিৎসার খরচ যোগাতে। তাই সরকারি সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন তিনি।

বালুরঘাট থানার পতিরাম গ্রাম পঞ্চায়েতের ঝাপুর্সি এলাকায় বাড়ি গনেশ রায়ের। পেশায় ভিন রাজ্যের শ্রমিক। বছর এগারো আগে কুমারগঞ্জের রাধানগর এলাকায় বিয়ে করেন তিনি। তাদের এক মেয়ে ও দুই ছেলে রয়েছে। নিজের বাড়ি বানানোর জন্য স্বামীর সঙ্গে ভিন রাজ্যে গেছিলেন স্ত্রী মুনমুন রায়। সুখেই দিন কাটছিল তাদের। বছর খানে আগে গুজরাটে থাকাকালীন রায় দম্পতির ছোট ছেলে আবীর রায়ের জ্বরে আক্রান্ত হন। অনেক চিকিৎসার পরেও জ্বর না কমায় সেখানকার এক বেসরকারি নার্সিংহোমে ছেলেকে ভরতি করেন। সেই সময় ধরা পরে বছর আড়াই এর আবীরের শরীরে বাসা বেঁধেছে মারণ রোগ ব্লাড ক্যানসার। চিকিৎসকদের কাছ থেকে প্রথম শুনে অনেকটা মাথায় ছাদ ভেঙে পরার মতই অবস্থায় হয়েছিল রায় দম্পতির। ছেলের চিকিৎসার জন্য অনেক টাকার প্রয়োজন। তাই ছেলেকে নিয়ে বাড়ি চলে আসেন তিনি। এরপর বালুরঘাটে প্রাইভেটে ও পরে হাসপাতালে ভরতি করান ছেলেকে। এখানকার চিকিৎসকরা আবীরকে রেফার করেন কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে। সেখানে দশ মাস ধরে চলছে ব্লাড ক্যানসারের চিকিৎসা। ছোট আবীরকে এখন পর্যন্ত সাতবার দেওয়া হয়েছে কেমো। বর্তমানে একটু সুস্থ থাকলেও পুরোপুরি আবীরকে সুস্থ করতে গেলে করাতে হবে বোন ম্যারো ট্র্যান্সফার। যত দ্রুত সম্ভব দিল্লীর এআইআইএমসে যোগাযোগ করতে হবে। তবে বোন ম্যারো ট্র্যান্সফার করতে দরকার কম করে সাত আট লাখ টাকা।


Share this post

0 σχόλια:

Post a Comment

Top Ad 728x90