Top Ad 728x90

Saturday, 10 November 2018

, ,

বাংলাদেশী এনজিওগুলো সন্ত্রাসী কাজে জড়িত!



সন্ত্রাস তহবিলের দায়িত্বে নিযুক্ত কয়েকটি ছোট ছোট বাংলাদেশের এনজিও থেকে আট কর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। এরা আনসার-আল- ইসলাম নামক নিষিদ্ধ সংগঠনের সদস্য ছিল। কর্মকর্তারা জানান, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একটি অফিসার পরে সন্ত্রাসী নেতা হয়ে ওঠে। তিন বছর আগে তার নাম একটি সুপরিচিত প্রকাশকের হত্যায় উঠেছিল। একজন কর্মকর্তা জানান, প্রকাশক হত্যাকাণ্ডের মাস্টারমাইন্ড ফয়জাল দীপনকে বরখাস্ত করা হয়েছে এবং মেজর সৈয়দ জিয়াউল হক ওই কাজ করেছিলেন।
এছাড়াও আনসারসুল্লাহ বাংলা দলের সাতজন ছিল, যারা ব্লগারদের লক্ষ্যবস্তু করার পরিকল্পনা করেছিল।
প্রসঙ্গত, ২০১৫ সালে ঢাকার শাহবাগ এলাকায় ৪৩ বছর বয়সী দীপন তার অফিসে মারা যান। একজন বাংলাদেশী কর্মকর্তা বলেন, হক নিষিদ্ধ সংগঠনের পরিচালনা পর্ষদ ছিলেন এবং তিনি ইসলামী সামরিক অভ্যুত্থানের জন্যেও চেষ্টা করেছিলেন।

Share this post

0 comments:

Post a Comment

Top Ad 728x90