Top Ad 728x90

Thursday, 4 October 2018

,

এই খাবারগুলো আপনার যৌন ক্ষমতা অজান্তে কমিয়ে দিচ্ছে

এই খাবারগুলো আপনার যৌন ক্ষমতা অজান্তে কমিয়ে দিচ্ছে

এই খাবারগুলো খান? এখনকার সময়ে অনেকেই যৌনাকাঙ্ক্ষা কম হওয়ার সমস্যায় ভুগে থাকেন। এই সমস্যার পিছনে খাদ্যাভাস বা যা খাওয়া হয় তার মারাত্মক প্রভাব থাকতে পারে। খাদ্যাভাস আপনার লিবিডোতে ক্ষতিকর প্রভাব ফেলতে পারে। বিশেষ করে যখন বয়স বাড়তে থাকে তখন এই ক্ষতিকর প্রভাব পড়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। তাই যে সব খাবার আপনার সেক্সের ইচ্ছা কমিয়ে দেয় বা যৌন ক্ষমতা নষ্ট করে সেগুলি খাবারের তালিকা থেকে বাদ দেওয়াই ভাল। আসুন জেনে নেওয়া যাক তেমন ধরনের কয়েকটি খাবার সম্পর্কে ৷ যেগুলো ধীরে ধীরে মৃত্যু ঘটাচ্ছে আপনার যৌন জীবনের ৷

সয়া থেকে যে সব খাবার তৈরি হয়, যেমন সয়া মিল্ক বা সয়া সস এগুলি ব্যাপকভাবে টেস্টোস্টেরোনের মাত্রা কমিয়ে দেয়। ফলে যৌন আকাঙ্ক্ষা কমে যায়। এরকম একটি তথ্য দিয়েছে ইউরোপিয়ান জার্নাল অব ক্লিনিক্যাল নিউট্রিশন। গবেষকরা দেখেছেন যে, যারা দিনে ১২০ গ্রাম সয়া খায় তাদের শরীরে টেস্টোস্টেরোন কমে যায়। আর যেসব পুরুষ সন্তান গ্রহণের কথা ভাবছেন তারা খাদ্য তালিকা থেকে সয়া একদম বাদ দিয়ে দিন। সয়া শুক্রাণুর পরিমাণও কমিয়ে দেয়।

যে কোনও ধরনের রিফাইন কার্বোহাইড্রেট বা শর্করা যৌন মিলনের ক্ষতিকর প্রভাব ফেলতে পারে। ক্র্যাকার্সে এই রিফাইন শর্করা সবচেয়ে বেশি পরিমাণে থাকে। অতিরিক্ত রিফাইন শর্করা টেস্টোস্টেরোনের মাত্রাও কমিয়ে দেয়। তাছাড়া রিফাইন করা শর্করায় যে চিনি থাকে তা ওজন বাড়ায়। এই চিনিও টেস্টোস্টেরোনের মাত্রা কমিয়ে দেয়। বিপরীতে শরীরে এস্ট্রোজেনের মাত্রা বাড়িয়ে দেয়।


অতিরিক্ত মদ খেলে তার পরিণাম সাংঘাতিক। যৌন জীবনে মারাত্মক ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে অতিরিক্ত অ্যালকোহল। ইরেক্টাইল সমস্যা সহ, ঠিকভাবে অর্গাজম না হওয়া এবং মিলনের শুরুতেই দ্রুত বীর্যপাতের যাওয়ার কারণ হতে পারে অতিরিক্ত মদ পান করা। আর তাছাড়া অ্যালকোহল আর রিচ ফুড সবসময় আপনাকে তন্দ্রাচ্ছন্ন করে রাখে, ফলে আপনি সেক্সের ব্যাপারে আর উৎসাহ বোধ করেন না।


যে সব খাবারে অতিরিক্ত হরমোন বা অ্যান্টিবায়োটিক আছে সেগুলি পরিহার করা উচিত। যেমন কিছু রেড মিটে প্রচুর হরমোন আছে। ফলে বেশি রেড মিট খেলে আপনার শরীরের প্রাকৃতিক হরমোনে ভারসাম্যহীনতা তৈরি হয়। রেড মিট নিয়ন্ত্রিত মাত্রায় খেলে তা বরং উপকারেই লাগে। রেড মিট জিঙ্ক এবং প্রোটিনের অন্যতম উৎস। প্রোটিন এবং জিঙ্ক উভয়ই ফ্যাট কমায় এবং পেশী গঠন করে।


অতিরিক্ত চিজ খেলেও যৌনজীবনে সমস্যা দেখা দিতে পারে ৷ আসলে গরুর দুধে প্রচুর পরিমাণে সিন্থেটিক হরমোন রয়েছে ৷ আর তা প্রচুর পরিমাণে গ্রহণের কারণে শরীরে স্বাভাবিক হরমোনের উৎপাদনে ব্যাঘাত ঘটে ৷

(ছবি  তথ্য সংগৃহীত)

Share this post

0 comments:

Post a Comment

Top Ad 728x90