Top Ad 728x90

More Stories

Saturday, 18 August 2018

কুসংস্কারের থাবা , সাপের কামড়ে মৃত শিশুকে ভাসিয়ে দেওয়া হল নদীতে

by

কানা হরি দত্তের মনসা মঙ্গল দক্ষিণবঙ্গ সহ গোটা বাংলায় মধ্যযুগীয় মঙ্গলকাব্য ধারায় ব্যাপক জন প্রসার লাভ করেছিল। লখিন্দরের সর্পাঘাত এবং তার পরবর্তীতে কলার মান্দাসে ভাসিয়ে দেওয়া এবং বেহুলার স্বর্গ পরিভ্রমণ এই কাহিনীর প্রেক্ষাপটে যেন মধ্যযুগীয় মঙ্গলকাব্যের সময়কালকে এই একবিংশ শতকের শেষভাগেও উজ্জ্বল প্রমাণ হয়ে রয়ল। আশ্চর্য হলেও লখিন্দরের মতোই সাপের কামড়ে এক মৃত শিশুকন্যাকে  কলার মান্দাসে নদীর জলে ভাসিয়ে দেওয়ার ঘটনা ঘটল।এহেন চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে ঝাড়গ্রাম জেলার বিনপুর থানার কুঁই গ্রামে।
সাপের কামড়ে এক মৃত শিশুকন্যাকে নিয়ে তিনদিন ধরে চলল গুনিন ওঝা দিয়ে  ঝাড়ফুঁক ও পূজা আর্চনা। পরে মৃত শিশুকে নদীতে ভাসিয়ে দেওয়ার জন্য কলার মান্দাস তৈরী করা হয়। মৃত শিশুর সাথে মৃত সাপটিকে বেঁধে দিয়ে নদীতে ভাসানোর প্রক্রিয়া চলল সারাদিন। অবশেষে লালগড় থানার পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে মৃত শিশু কন্যার দেহটি উদ্ধার করে নিয়ে যায়। পুলিশ ও স্থানীয় গ্রামবাসীদের সূত্রে জানা গিয়েছে চোদ্দ আগস্ট বিনপুর থানার কুঁই গ্রামের বাসিন্দা পেশায় দরিদ্র দিন মজুর বাপি খাঁ তার বছর চারের মেয়ে অনুকে সাথে নিয়ে রাতে খাটে উপর ঘুমাচ্ছিল। গভীর রাতে শিশুটি যন্ত্রনায় চিৎকার করে ওঠে। তার বাবাকে ডেকে বলে তাকে সাপে কামড়েচ্ছে। কিন্তু তার বাবা কিছু হয়নি বলে আবার ঘুম পাড়িয়ে দেয়। পনেরো আগস্ট সকালে শিশুটির শরীর খারাপ হতে শুরু করে এবং সে বমি করতে শুরু করে।ইতিমধ্যে সকালে বাপি খাঁদের বিছানায় একটি চিতি সাপ দেখা যায়। সবাই মিলে সাপটিকে মেরে ফেলে।শিশুটির শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে প্রথমে বিনপুরে গ্রামীন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।সেখান থেকে ঝাড়গ্রাম জেলা সুপারস্পেশালিটি হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। পুলিশ জানিয়েছে ঝাড়গ্রাম জেলা হাসপাতাল থেকে শিশুটিকে মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে স্থানান্তরিত করা হয়েছিল। কিন্তু মেদিনীপুর নিয়ে যাওয়ার পথে মৃত্যু হয় শিশুটির। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে শিশুটির পরিবার এরপর আর গ্রামে ফিরে আসেনি। তারা মনে করে নদীতে ভাসিয়ে দিলে সন্তান বেঁচে উঠবে। খাঁ পরিবার এরপর মৃত অনুকে নিয়ে সোজা চলে যায় লালগড় থানার লাঘাটা গ্রামে। ওখানে বিকেল নাগাদ একটি ভেলাতে মৃত অনুকে তোলা হয়।সেই ভেলাতে বেঁধে দেওয়া হয় মরা সাপ টিকেও। ফুল,মালা দিয়ে কংসাবতী নদীর জলে ভসিয়ে দেওয়া হয়। ভাসিয়ে দেওয়ার কিছু পরেই তারা খবর পায় গ্রামের এক গুনিন আছে যে কিনা সাপে কাটা মৃতকেও বাঁচিয়ে তুলতে পারে। এরপর নদী থেকে মৃত দেহ টি তুলে আনা হয়। লাঘাটা গ্রামের ওই গুনিনের বাড়িতে রাতভর চলে মনসা পূজা।কিন্তু এদিন বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত পুজা চললেও দেহে সাড় না দেখে আবারও দেহটি কে নদীতে ভাসিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়।ইতিমধ্যে দেহটি ফুলে,ফেঁপে গিয়েছিল।এই খবর ছড়িয়ে পড়লে আশেপাশের গ্রামের লোকজন জুটে যায়। বিকেল সাড়ে চারটা পর্যন্ত চলে দেহ ভাসানোর তোড়জোড়।শেষ পর্যন্ত লালগড় থানার পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌছে মৃতদেহ টি উদ্ধার করে।

হেলমেট না পরার শাস্তি রক্তদান!

by

হেলমেট না পরার শাস্তি হল রক্তদান। শুক্রবার সেইভ ড্রাইভ সেইভ লাইফ উপলক্ষে এভাবেই এদিন রক্তদান শিবির করল নাগরাকাটা থানার পুলিশ।থানার সামনেই বিশ্রামালয়ে এদিন রক্তদান শিবিরের আয়োজন করল পুলিশ।পাশাপাশি যারা হেলমেট না পরে বাইক চালাছে তাদের তাদের দাড় করিয়ে ফাইন না কেটে তাদের রক্তদান করার জন্য অনুরোধ করল পুলিশ।সকাল দশটা থেকে শুরু হয় মোট ১৫০ জন রক্তদান করে বেলা দুইটা পর্যন্ত।এদিনের এই অনুষ্ঠানে ছিলেন,নাগরাকাটা থানার ওসি সৈকত ভদ্র,এস আই মোবারক হোসেন,বিডিও সাংগে পেমা ভুটিয়া সহ অনান্যরা।

১৩ দিন জল নেই, বাপেরবাড়ি চলে যাওয়ার হুমকি বধূর

by

উত্তর ২৪ পরগনা জেলার বাগদা এলাকার সাধারন মানুষের পানীয় জলের প্রধান মাধ্যম জনস্বাস্থ্য কারিগরি দপ্তরের সরবারাহিত জল l কিন্তু দীর্ঘ ১৩ দিন জল সরবরাহ বন্ধ থাকায় নাকাল হতে হচ্ছে বাগদা গ্রাম পঞ্চায়েতের আট দশটি গ্রামের কয়েক হাজার মানুষের l
বাগদার স্থানীয় বাসিন্দা স্বপন হালদার জানালেন দীর্ঘদিন পানীয় জলের সমস্যায় ভুগছি অনেক দূর থেকে পানীয় জল নিয়ে আসতে হচ্ছে এই কারনে আমার স্ত্রী বাপের বাড়িতে চলে যাবে বলে হুমকি দিচ্ছে অশান্তির সৃষ্টি হচ্ছে প্রতিনিয়ত l গত ইংরাজী পাঁচ তারিখ থেকে জল সরবরাহ বন্ধ বাগদা এলাকায় , প্রাথমিক পর্যায়ে পাইপ লাইনের সমস্যা থাকায় সেটা সারাই করে দপ্তরের পক্ষ থেকে কিন্তু দশ তারিখ থেকে বিদ্যুৎ এর সমস্যার জন্যে পুনরায় জল সরবরাহের কাজ শুরু করা যায়নি বলে জানালেন জনস্বাস্থ্য কারিগরি দপ্তরের ঠিকা কর্মীরা l স্থানীয় মানুষের পরিস্রুত পানীয় জলের জন্যে পঞ্চায়েত অফিসের সামনে সজল ধারা প্রকল্পের উপর নির্ভর করতে হচ্ছে l যদিও বর্তমান সমস্যার জন্যে বিদ্যুৎ দপ্তরের দিকে অভিযোগ তুলেছেন স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েতের উপ প্রধান অমূল্ল্য হাওলাদার , জেলা পরিষদের সদ্য জয়ী মেম্বার পরিতোষ সহা ও বাগদা গ্রাম পঞ্চায়েতের সদ্য জয়ী পঞ্চায়েত সদস্য সঞ্জিত সর্দার l সকোলে মিলে বলেন এলাকার মানুষ জল না পেয়ে আমাদের কাছে অভিযোগ জানাচ্ছে আমরা এই ব্যাপারে বিদ্যুৎ দপ্তরের কর্তাদের জাননা সত্ত্বেও কোন লাভ হয়নি l অন্যদিকে বাগদা বিদ্যুৎ দপ্তরের ম্যানেজার ভবতোষ মল্লিক জানালেন আমার সমস্যার ব্যাপারে উর্ধতন কতৃপক্ষকে জানিয়েছি দ্রুততার সঙ্গে সমস্যার সমাধান করা হবে l এখন দেখার বাগদার মানুষ ফের আবার জল পায়। 

বাজার করতে গিয়ে আক্রান্ত অভিনেতা

by

বাজার কর‍তে গিয়ে আক্রান্ত অভিনেতা সায়ক চক্রবর্তী। তার এক বন্ধু সহ আরও কয়েকজনকে মারধোর করা হয়েছে। পার্কিংকে কেন্দ্র করে ঝামেলার সুত্রপাত। সায়ক ও তার বন্ধু বাইক রেখে বাজার করছিল। বাজারের পর সে বাইক নিয়ে বেরিয়ে আসার সময় তার উপর কয়েকজন চড়াও হয়। তাদের হাতে আগ্নেয়াস্ত্র ছাড়াও লাঠি ছিল। লাঠি দিয়ে মারা হয় সায়ক কে। এছাড়াও এলাকার আরও কয়েকজনকে মারধর করা হয়েছে বলে অভিযোগ। এই ঘটনায় বাজার করতে আসা বিভিন্ন মানুষজন আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। এরপর বাঘাযতীন স্টেট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় সায়ককে। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসার পর সোনারপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করে সে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। যদিও এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কেউ গ্রেপ্তার হয়নি।

ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে ধৃত ব্যবসায়ী

by

১৪ বছরের নাবালিকা ছাত্রীকে শ্লীলতাহানি অভিযোগ । অভিযোগ দায়ের বারাসাত থানায় । গ্রেপ্তার অভিযুক্ত পিন্টু রায় । পরিবারের অভিযোগ নবম শ্রেণীর ওই ছাত্রীকে বিভিন্ন সময় ভয় দেখিয়ে ও টাকার লোভ দেখিয়ে কুটুক্তি করতো ওই নাবালিকাকে ।
বৃহস্পতিবার রাতে পিন্টু ও তার পাশের ভাড়াটিয়া সাথে ঝামেলা বাধলে এই নাবালিকাকে শ্লীলতাহানি কথা সকলকে জানিয়ে দেন ওই ভাড়াটিযা । তারপরে ওই ছাত্রীর  পরিবারের সদস্যরা নাবালিকাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে ওই ছাত্রী সমস্ত বিষয় তার পরিবার কে জানায়। গতকাল রাত পরিবারের সদস্যরা জানতে পেরে অভিযুক্ত পিন্টু কে পুলিশের হাতে তুলে দেন । আজ সকালে বারাসাত থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এলাকা বাসী জানান ৪৫ বছর বয়সী পিন্টু রায়  পেশায় মাছ ব্যবসায়ী বিভিন্ন সময় সে সকলকে কটুক্তি করতো । নাবালিকা জানান  পিন্টু রায়ের ছেলের সাথে একই শ্রেণী তে পড়াশুনো করার জন্য তার বাড়িতে বিভিন্ন কাজে যেত সেই সময় ওই নাবালিকাকে কুটুক্তি ও শ্লীলতাহানি করে ও বিষয় টি না জানানোর ভয় দেখাতো ।অভিযুক্ত পিন্টু রায়কে আজ বারাসাত আদালতে হাজির করা হবে।

গুগল ড্রাইভের পর এবার "গুগল ওয়ান" পরিষেবা চালু

by
গুগল ড্রাইভের পর এবার গুগল ওয়ান নামের একটি পরিষেবা চালু করলো গুগল। নতুন গুগল ওয়ান এ থাকছে গুগল ড্রাইভে এর মতন একই রকম স্টোরেজ প্ল্যান। তবে তা আরও সস্তা বলে জানিয়েছে সংস্থার কতৃপক্ষ। তবে এর সাথে আরো বেশ কিছু আলাদা সুবিধা পাওয়া যাবে যা গুগলে ড্রাইভে আগে ছিল না।এর মধ্যে রয়েছে ফ্যামিলি শেয়ার ,গুগল ক্রেডিট, গুগলে এক্সপার্ট এসিস্ট্যান্ট ইত্যাদি।নতুন গুগলে ওয়ানে এবার একটি প্যাকেজ শেয়ার করতে পারবেন ফ্যামিলির সর্বাধিক 5 জন। তাছাড়া জিমেইল ও গুগল ফটোর যাবতীয় ডকুমেন্ট শেয়ার করা যাবে এখানে। আই ক্লাউডের প্রতিপক্ষ হিসেবে গুগল ওয়ানকে বাজারে নিয়ে আসা হচ্ছে বলে মনে করছেন অনেকে।আপাতত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে চালু হলেও খুব শীঘ্রই তা বিভিন্ন দেশে চালু হবে জানিয়েছে গুগল।
সংগৃহীত 

বছর ১৬ বালকের কীর্তি, অ্যপেল কম্পিউটার হ্যাকের অভিযোগ !

by
অ্যাপেলের কম্পিউটারে ঢুকে ডেটা হ্যাকের অভিযোগ বছর ষোলোর বালকের বিরুদ্ধে। অষ্ট্রেলিয়ায় মেলবোর্ন শহরের এই বালক গত ১ বছর ধরে ইউএসএ অবস্থিত অ্যাপেলের মূল কম্পিউটারে হ্যকিং করে ঢুকে পড়ে। বিভিন্ন তথ্য নিয়ে প্রায় ৯০ জিবি ডেটা ওই কম্পিউটার থেকে হ্যক করে বলে অভিযোগ। এবিষয়ে অ্যাপেলের পক্ষ থেকে এফবিআইকে জানানো হলে এফবিআই অষ্ট্রেলিয়ান ফেডেরাল পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করে। এবং অভিযোগের ভিত্তিতে সেই বালকের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ২ টি ল্যাপটপ উদ্ধার করে অষ্টেলিয়ান ফেডেরাল পুলিশ। যদিও অ্যাপেলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে এরকম ঘটনা ঘটলেও গ্রাহকের তথ্য ফাসের সেরকম কোন ঘটনা ঘটেনি। যদিও বিষয়টি কোর্টের অধীনে থাকায় এখনও কেই কোন মন্তব্য করতে রাজি নয়।

Top Ad 728x90

Top Ad 728x90