Top Ad 728x90

More Stories

Tuesday, 14 August 2018

ভাড়াটিয়া-মালিকের বিবাদের জের, ফুটন্ত হাঁড়িতে ফেলে দেওয়া হল শিশুকে

by

ভাড়া নিয়ে বাড়ির মালিকদের সঙ্গে ভাড়াটিয়ার বিবাদ৷ আর সেই বিবাদেরই চরম মাশুল দিতে হল দুধের শিশুকে! রাগের মাথায় বাড়ির মালিকের ৩ বছরের শিশুসন্তানকে ভাড়াটিয়া ফুটন্ত ভাতের হাঁড়িতে ফেলে দিয়েছেন বলে অভিযোগ৷  অমানবিক ঘটনাটি ঘটেছে উল্টোডাঙার গোরাচাঁদ সাহা লেনে।
পুলিশ জানিয়েছে, উল্টোডাঙার ওই এলাকার এক বাড়িতে সপরিবারে ভাড়া থাকেন রাজকুমারী সাউ৷ বাড়ির মালিকের অভিযোগ, কোনও মাসে ঠিক সময়ে ভাড়া দেন না তিনি৷  মঙ্গলবার সকালে প্রতিদিনের মতো টাকা চাইতে গিয়েছিলেন বাড়িমালিক৷ ফের রাজকুমারী সাউয়ের সঙ্গে তাঁর বচসা শুরু হয়৷ ঘটনার সময়ে ওই বাড়ি লাগোয়া পাঁচিলের উপর বসে ছিল বাড়িমালিকের বছর তিনেকের শিশুসন্তান৷ পাঁচিলের পাশে ছিল ফুটন্ত ভাতের হাড়ি৷  বচসা চলাকালীন  রাজকুমারী আচমকাই ওই শিশুটিকে ধাক্কা মেরে পাঁচিল থেকে ফেলে দেন বলে অভিযোগ৷  ফুটন্ত হাঁড়িতে পড়ে যায় সে৷
শিশুর কান্নার আওয়াজ পেয়ে ঘটনাস্থলে জড়ো হন স্থানীয় বাসিন্দারা৷ শিশুটিকে গরম হাঁড়ি থেকে উদ্ধার করা হয়৷ তড়িঘড়ি তাকে নিয়ে যাওয়া হয় স্থানীয় একটি হাসপাতালে৷ তার শরীরের ৭০ শতাংশ পুড়ে গিয়েছে।শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় শিশুটিকে এসএসকেএম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা৷ এখন এসএসকেএম-র উডবার্ন ওয়ার্ডে চিকিৎসা চলছে তার৷  অভিযুক্ত রাজকুমারী সাউয়ের বিরুদ্ধে উল্টোডাঙা থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন বাড়ির মালিক৷  অভিযুক্তের অবশ্য দাবি, খেলতে খেলতে শিশুটি ফুটন্ত ভাতের হাড়িতে পড়ে গিয়েছে৷

রাতভর নেই ডাক্তার, বিনা চিকিৎসায় মৃত্যুর রোগীর

by

প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নেই চিকিৎসক। ভর্তি হয়েও বাঁচানো গেল না রোগীকে। গভীর রাতে হাসপাতালে বিক্ষোভ। পুলিশ গেলে পুলিশকে ঘিরেও বিক্ষোভ দেখায় রোগীর আত্মীয়রা। রাত দুটো পর্যন্ত জাতীয় সড়ক অবরোধ করে চলে বিক্ষোভ। মঙ্গলবার সকালেও হাসপাতালে নেই চিকিৎসক। ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী। তৃণমূল নেতৃত্বও স্বীকার করে নিয়েছে হাসপাতালের দুরাবস্থার কথা।
পুরুলিয়ার মফঃস্বল থানার হুটমুড়া প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নেই চিকিৎসক। চিকিৎসক আসেন নিজের খেয়াল খুশি মতো।নার্স এবং চতুর্থ শ্রেণীর কর্মীরাই চালান চিকিৎসার কাজ। সোমবার রাত সাড়ে আটটা নাগাদ ভবানীপুর গ্রামের  নিরঞ্জন বাউরি (৫০) নামে এক ব্যাক্তিকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। বেশ কিছুক্ষণ ফেলে রাখা হয় তাঁকে। এরপর তাঁর মৃত্যু হয়। এই ঘটনায় ব্যপক চাঞ্চল্য ছড়ায় এলাকায়। প্রতিবাদে ৬০এ জাতীয় সড়ক অবরোধ করে চলে বিক্ষোভ। মফঃস্বল থানার পুলিশ গেলে ,পুলিশকে ঘিরেও বিক্ষোভ দেখায় ক্ষুব্ধ জনতা। রাত প্রায় ২টা পর্যন্ত চলে এই অবরোধ বিক্ষোভ।এই ঘটনার পর মঙ্গলবার সকালেও অনুপস্থিত ওই হাসপাতালের দায়িত্বপ্রাপ্ত চিকিৎসক সায়ন মণ্ডল। ক্ষুব্ধ এলাকাবাসীর দাবি প্রায় দুটি গ্রাম পঞ্চায়েতের মানুষ এই হাসপাতালের উপর নির্ভরশীল। হাসপাতালে রোগীকে কোনও গুরুত্ব দেওয়া হয় না বলে অভিযোগ।বহু বার কর্তৃপক্ষ কে জানিয়েও কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। এলাকার স্থানীয় বাসিন্দা তথা তৃণমূল সংখ্যালঘু সেলের জেলা সভাপতি শেখ রহিম হাসপাতলে চিকিৎসক না থাকার কারণে রোগীর মৃত্যুর ঘটনা স্বীকার করে নেন।

সাইবার প্রতারণার দায়ে গ্রেফতার ২

by

সারা দেশে সাইবার প্রতারণার ভয়ে মানুষ এখন তটস্থ। সাইবার প্রতারণায় প্রতারিত হয়েছেন প্রচুর মানুষ। সাইবার দমন শাখা এই অপরাধীদের ধরার চেষ্টা চালাচ্ছেন বহু জায়গায় এইরকম সাইবার অপরাধীদের ধরা হচ্ছে। ঠিক এরকমই  অপরাধী ধরা পড়ল।
দুর্গাপুর থানার পুলিশ  বিকাশ মণ্ডল নামে বাইশ বছরের এক যুবককে দুর্গাপুর এলাকা থেকে আটক করে, পরে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে আরও একজন আসামীর নাম সামনে আসে। সূত্রের খবর পুলিসি জেরায় বিকাশ জানায়, সাইবার অপরাধের সঙ্গে তার সঙ্গী অন্ডালের উখড়া এলাকার চেম্বার অব কমার্সের যুব মঞ্চের সেক্রেটারি পঙ্কজ মোদী। সোমবার রাতে পুলিশ পঙ্কজ মোদিকে গ্রেপ্তার করে। চেম্বার অব কমার্সের যুব মঞ্চের সেক্রেটারি সাইবার অপরাধের দায়ে  ধরা পড়ায় হতভম্ব উখড়ার ব্যবসায়ী মহল। চেম্বার অব কমার্স এর সঙ্গে যুক্ত মনোজ সরাফ জানান, পঙ্কজ কারও কাছ থেকে একটা ল্যাপটপ কিনেছিল, সেটা হয়তো হতে পারে এর জন্য পঙ্কজ অবশ্যই দোষী। কিন্তু কোনওভাবে পঙ্কজ সাইবার অপরাধের সঙ্গে যুক্ত নয়। যদিও পুলিশ মঙ্গলবার দুই অভিযুক্তকে দুর্গাপুর আদালতে পেশ করে।

কাটোয়ায় মহা সমারোহে পালিত কন্যাশ্রী দিবস

by

কন্যাশ্রী দিবস উদযাপন অনুষ্ঠান করল কাটোয়া ২নং ব্লক প্রশাসন। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের নারী উন্নয়নও শিশু বিকাশ এবং সমাজ কল্যাণ দপ্তরের উদ্যোগে এবং কাটোয়া ২নং সমষ্টি ও পঞ্চায়েত সমিতির  ব্যবস্থাপনায় কাটোয়া ২নং ব্লকে সংস্কৃতি মঞ্চে অনুষ্ঠিত হল কন্যাশ্রী দিবস।  প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করে অনুষ্ঠানের সূচনা করেন কাটোয়া মহকুমাশাসক সৌমেন পাল। উপস্থিত ছিলেন কাটোয়া ২নং ব্লকের বিডিও শিবাশিস  সরকার, দাঁইহাট পৌরসভার চেয়ারম্যান শিশির কুমার মণ্ডল সহ  অন্যান্য প্রশাসনিক আধিকারিকরা। কন্যাশ্রী দিব উদযাপন উপলক্ষে একটি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান করা হয়। নৃত্য, সংগীত ও কবিতা আবৃত্তিতে অংশগ্রহণ করে কন্যাশ্রীর মেয়ারা। এদিন মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক কৃতী ছাত্রদের সংবর্ধনা দেওয়া হয়। এলাকার প্রায় সবকটি বিদ্যালয়ের স্কুলের শিক্ষক শিক্ষিকারা উপস্থিত ছিলেন।

ফের তৃণমূল-যুবর লড়াইয়ে রক্ত ঝরল দিনহাটায়

by

ফের এলাকা দখলকে কেন্দ্র করে তৃণমূল কংগ্রেস এবং যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সংঘর্ষে ব্যাপক উত্তেজনা দিনহাটার গীতালদহ গ্রাম পঞ্চায়েতের হরিরহাট এলাকায়। এলাকায় ব্যাপক বোমাবাজি এবং গুলি চালানোর অভিযোগ উঠেছে যুব তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে। যুব তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীর গুলিতে গুরুতর জখম হয় দুইজন তৃণমূল কর্মী বর্তমানে কোচবিহার এমজেএন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেসের অভিযোগ আবু আল আজাদের নেতৃত্বে বেশ কিছু যুব তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী ওই এলাকায় সন্ত্রাসের পরিবেশ তৈরি করে রেখেছে দীর্ঘ দিন ধরে।মঙ্গলবারও ওই এলাকায় বেশ কিছু যুব তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী বোমাবাজি করে এবং আজাদুল হক, আবুল কালাম আজাদ নামে দুই তৃণমূল কর্মীকে লক্ষ করে গুলি চালানো হয়। তৃণমূল কংগ্রেসের অভিযোগ ঘটনার পর অনেক পর পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। পুলিশ দেরীতে পৌঁছানোয় বিএসএফ কর্মীরা আহত দুই তৃণমূল কর্মীকে দিনহাটা মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে আসে। দিনহাটা মহকুমা হাসপাতালে চিকিৎসার গাফিলতি অভিযোগ তোলে চিকিৎসকদের মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। ঘটনার পর দিনহাটা থানার পুলিশ একজন তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীকে আটক করেছে। বর্তমানে এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা রয়েছে, মোতায়েন রয়েছে বিশাল পুলিশবাহিনী। তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দল এর ঘটনা অস্বীকার করে কোচবিহার জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি রবীন্দ্রনাথ ঘোষ জানান, যারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে তারা এলাকার দুষ্কৃতী।

ইটাহারে বোমার আঘাতে শিশুর পাশে যুবমঞ্চ

by

বোমের আঘাতে আহত শিশুকে আর্থিক সাহায্য তুলে দিল ইটাহার যুব মঞ্চ। উল্লেখ্য কয়েক দিন আগে উত্তর দিনাজপুর জেলার ইসলামপুরের বেড়বেড়ি গ্রামে মহম্মদ আদনাথ নামে ছোট্ট এক শিশু বাড়ির পাশে খেলতে গিয়ে পড়ে থাকা বোমা ফেটে আহত হয়। দুঃস্থ, অসহায় পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন ইটাহার যুব মঞ্চের সদস্যরা। আদনাথের বাড়িতে গিয়ে নগদ দশ হাজার টাকা তুলে দেওয়া হয়। ছিলেন যুব মঞ্চের সম্পাদক সফিকুল ইসলাম, সভাপ্রতি রবিউল ইসলাম, কৃষ্ণেন্দু রায়, মানস রেজা, ওয়াসিম আক্রম সহ অন্যান্যরা।  

রক্তসঙ্কট কাটাতে ইটাহারের ৯০ জনের রক্তদান

by

গ্রামবাসীদের উদ্যেগে প্রতি বছরের মতো এবারও রক্তদান শিবিরের আয়োজন করা হল ইটাহারে। মঙ্গলবার ইটাহার বিধিবারী গ্রামের সমস্ত মানুষের উদ্যেগে গ্রামের মধ্যে রক্তদান শিবিরের আয়োজন করা হয়। এদিন গ্রামের পুরুষ ও মহিলা মিলে ৯০ জন রক্তদান দান করেন। ছিলেন গ্রামের বিশিষ্টজন হিসাবে পরিচিত মফিজ উদ্দিন আহমেদ, মুকশেদ আলি, জাকির হোসেন, সিরাজুল ইসলাম, নইমুদ্দিন ইসলাম সহ গ্রামের সাধারন মানুষ। এদিন মফিজ উদ্দিন বলেন,  জাতি ধর্ম নির্বিশেষে গ্রামের সকল মানুষের উদ্যেগে রক্তদান শিবিরের আয়োজন করা হয়, জেলা ব্লাড ব্যাঙ্কের রক্ত সংকট মেটাতে ও গ্রামের সাধারণ মানুষের বিপদ-আপদের ক্ষেত্রে এই রক্তদান শিবির, পাশাপাশি স্বাধীনতা দিবসের আগে এটি এক মহান উদ্যোগ।

Top Ad 728x90

Top Ad 728x90